বিদ্যুৎ উৎপাদনের মেগা সিটি হবে আশুগঞ্জ

ঢাকা, বুধবার   ২১ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৯ ১৪২৮,   ০৮ রমজান ১৪৪২

বিদ্যুৎ উৎপাদনের মেগা সিটি হবে আশুগঞ্জ

সন্তোষ চন্দ্র সূত্রধর, আশুগঞ্জ (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০০ ৬ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৪:১৭ ৬ মার্চ ২০২১

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেডের অধীনে ১৮০০ মেগাওয়াটের আরো নতুন তিনটি বিদ্যুৎ উৎপাদনের ইউনিট স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। এরইমধ্যে নতুন তিনটি ইউনিট স্থাপনের জন্য দরপত্রের মাধ্যমে প্রকল্প এলাকায় মাটি ভরাটের কাজ শুরু হয়েছে।

আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানির নিজস্ব ৮টি ইউনিট থেকে দৈনিক ১৬৯০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। দেশের মোট চাহিদার প্রায় ১৫ শতাংশ বিদ্যুৎ সরবরাহের লক্ষ্যে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে। তিনটি ইউনিট উৎপাদনে আসলে আশুগঞ্জ তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে  মোট চাহিদার প্রায় ১৫ শতাংশ বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা সম্ভব হবে। 

এরইমধ্যে কোম্পানীর বি-টাইপ আবাসিক এলাকায় কোম্পানী অধিগ্রহণ করা অব্যবহৃত জমিতে মাটি ভরাটের কাজ শুরু হয়েছে। মাটি ভরাট করে জায়গা কনসালটেন্টদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হবে। তারপর কনসালটেন্টরা জায়গার সমীক্ষা ও নিরীক্ষা করে এক বছরের মধ্যে প্রতিবেদন দিবে। তারপর আন্তর্জাতিক টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষে শুরু মূল প্লান্ট নির্মাণের কাজ। 

আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশনে নিজস্ব ৮টি ইউনিট ছাড়াও নতুন ৪’শত মেঘাওয়াট সিসি পিপি ইস্ট নামে আরো একটি ইউনিট নির্মিত হচ্ছে। এছাড়া বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় আশুগঞ্জে আরো ৪টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে। ফলে বিদ্যুৎ উৎপাদনের মেগা সিটিতে পরিণত হচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড।

আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. সাইফুল ইসলাম জানান, দ্রুত মাটি ভরাট হওয়ার পর কনসালটেন্টদের কাছে এই জায়গা বর্ষা মৌসুম আসার আগেই বুঝিয়ে দেয়া হবে।

আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড এর নির্বাহী পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) প্রকৌশলী ক্ষিতীশ চন্দ্র বিশ্বাস, তিনটি পাওয়ার প্লান্ট স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে এবং এরইমধ্যে কনসালটেন্ট নিয়োগ করা হয়েছে। যার ব্যয় হবে ৯ হাজার কোটি টাকা।

আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রকৌশলী এএমএম সাজ্জাদুর রহমান জানান, বিদ্যুৎ উৎপাদনের এই ৩টি ইউনিট নির্মিত হলে প্রতিদিন আরো ১৮০০ বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে। সবগুলো ইউনিট চালু হলে আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন থেকে দৈনিক ৩ হাজার ৯শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষম হবে। যা দিয়ে দেশের মোট চাহিদার প্রায় ১৫ শতাংশ বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

গ্যাস ভিত্তিক এই তিনটি নতুন বিদ্যুৎ উৎপাদনের ইউনিট নির্মাণ করতে ব্যয় হবে ৯ হাজার কোটি টাকা। আর ইউনিটগুলো চালু হলে দেশের ১৫ শতাংশ বিদ্যুতের চাহিদা মেটাবে আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস/জেএইচ