স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে মেয়েকে ধর্ষণ, বাবার যাবজ্জীবন

ঢাকা, সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৬ ১৪২৮,   ০৬ রমজান ১৪৪২

স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে মেয়েকে ধর্ষণ, বাবার যাবজ্জীবন

কক্সবাজার প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫৮ ৩ মার্চ ২০২১  

কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর এজলাস

কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর এজলাস

কক্সবাজারের রামুতে স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছর সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বুধবার কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেবুন্নাহার আয়শা এ আদেশ দেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত শামসুল আলম কক্সবাজারের রামু উপজেলার রশিদনগর ইউনিয়নের ধলিরছড়া মুরাপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।
‌‌
আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২৮ জুন রাতে স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে নিজের কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণ করেম শামসুল। পরবর্তীতে এই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। এই ঘটনায় একই বছরের ৬ জুলাই শামসুল আলমের বিরুদ্ধে রামু থানায় ধর্ষণ মামলা করেন ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা রাজিয়া বেগম। ২০১৯ সালের ১৪ মে এই মামলার অভিযোগ গঠন হয়। দীর্ঘ বিচারকাজ শেষে আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেয় আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ মো. রেজাউর রহমান রেজা বলেন, ৯ জন সাক্ষ্যগ্রহণ ও অন্যান্য প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত এ রায় দিয়েছে। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ধর্ষণের শিকার কিশোরী ও তার মা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর