নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জালে ধ্বংস হচ্ছে মাছ

ঢাকা, বুধবার   ০৩ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৮ ১৪২৭,   ১৮ রজব ১৪৪২

নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জালে ধ্বংস হচ্ছে মাছ

খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১৯ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

কাজীবাছা, পশুর, শোলমারী, শিবসা নদীর দুই পাড়ে হাজারো নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জাল দিয়ে ধরা হয় বাগদা ও গলদা চিংড়ির রেনু

কাজীবাছা, পশুর, শোলমারী, শিবসা নদীর দুই পাড়ে হাজারো নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জাল দিয়ে ধরা হয় বাগদা ও গলদা চিংড়ির রেনু

খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার কাজীবাছা, পশুর, শোলমারী, শিবসাসহ উপকূলীয় নদীগুলোতে অবাধে ব্যবহার করা হচ্ছে অবৈধ ‘মশারি’ জাল। এতে দিনদিন ধ্বংস হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের রেনু ও পোনা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নদীগুলোর দুই পাড়ে হাজারো নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জাল দিয়ে বাগদা ও গলদা চিংড়ির রেনু ধরছে নদী সংলগ্ন এলাকার মানুষ। এতে অন্যান্য প্রজাতির মাছের কোটি কোটি রেনুও ধ্বংস হচ্ছে। দিনদিন কমে যাচ্ছে মাছের বংশবিস্তার।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নিষিদ্ধ ‘মশারি’ জালের ব্যবহার রোধ ও মাছের রেনু-পোনা রক্ষায় উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও কোস্ট গার্ড অভিযান চালিয়ে জাল উদ্ধার, জেল-জরিমানা করলেও থামানো যাচ্ছে না ‘মশারি’ জালের ব্যবহার। অভিযান শুরুর আগে রেনু শিকারীরা গা ঢাকা দেয়। অভিযান শেষ হলেই তারা আবারো ‘মশারি’ জাল নিয়ে নদীতে নেমে পড়ে।

বটিয়াঘাটা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনিরুল মামুন জানান, তারা ‘মশারি’ জালের ব্যবহার বন্ধে যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন। এর আগে বেশ কয়েকবার অভিযান চালিয়ে জেল-জরিমানা করা হয়েছে। এ বিষয়ে কোস্ট গার্ডও যথেষ্ট সতর্ক অবস্থানে আছে।

তিনি আরো জানান, ‘মশারি’ জাল দিয়ে রেনু-পোনা শিকারীরা খুবই ধূর্ত। অভিযান শুরুর আগেই তারা খবর পেয়ে দ্রুত জাল নিয়ে সরে পড়ে। তবে ‘মশারি’ জালের ব্যবহার ও রেনু-পোনা নিধন বন্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর