অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ফেসবুকে ছড়ানোয় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৯ ১৪২৮,   ০৯ রমজান ১৪৪২

অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ফেসবুকে ছড়ানোয় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

মাদারীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫৮ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৮:৫৮ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

নিহত লিপি আক্তার

নিহত লিপি আক্তার

ফেসবুকে আপত্তিকর ও অন্তরঙ্গ মূহূর্তের কিছু ছবি ভাইরাল হওয়ার কারণে ক্ষোভে মাদারীপুরের শিবচরের স্কুলছাত্রী লিপি আক্তার বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। রোববার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। শিবচর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিহত লিপি আক্তার মাদারীপুরের শিবচরের উপজেলার পাঁচ্চর ইউনিয়নের বালাকান্দি গ্রামের দুবাই প্রবাসী দুলাল ফরাজির মেয়ে। সে পাঁচ্চর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। চলতি বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, মাদারীপুরের শিবচরের উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের বখাটে যুবক মো. রনি বেপারীর সঙ্গে লিপি আক্তারের সঙ্গে (সম্পর্কে বিয়াই) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ছেলের পক্ষের বিয়ের প্রস্তাব মেয়ের পক্ষ প্রত্যাখ্যান করে। তারপর থেকেই বখাটে ওই যুবক মো. রনি বেপারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে ‘নিঝুম রাতের নিল পরি’ (ফেক) আইডিতে মেয়েটির কিছু অন্তরঙ্গ মূহূর্তের ছবি আপলোড করে। এতে মেয়েটির বেশ কিছু ছবি ভাইরাল হয়।

ওই ক্ষোভে শুক্রবার সন্ধ্যায় বিষাক্ত পদার্থ পান করে লিপি। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখান থেকে প্রথমে ফরিদপুর এবং পরে ঢাকা নেয়ার পর রোববার সকালে সে মারা যায়।

এলাকার একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ‘নিঝুম রাতের নিল পরি’ নামক ওই ফেক আইডিটি  মো. রনি বেপারী নামের এক যুবক পরিচালনা করতো।

নিহতের চাচা ইউসুফ রাজি জানান, আমার ভাতিজি লিপি আক্তারের ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার কারণে বিগত দুদিন আগে সে বিষাক্ত পদার্থ পান করে। রোববার সকালে সে ঢাকায় মারা যায়।

নিহতের মা হিরন বেগম জানান, তার মেয়েকে এর আগে ওই বখাটে রনির পরিবার বিয়ের প্রস্তাব দেয়। আমার এক ভাগ্নিকে ওই বাড়িতে ওরই (রনি বেপারীর) চাচাতো ভাইয়ের কাছে বিবাহ দেয়ায় আমরা সেখানে আত্মীয়তা করতে চাইনি। এ কারণে সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার মেয়ে কিছু ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেয় এবং ছবিসহ আরও ভিডিও ফেসবুকে ছাড়ার হুমকি দেয়।

শিবচর থানার এসআই মো. রহমত আলী জানান, লিপি আক্তার গত শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজের ঘরে থাকা বিষাক্ত দ্রব্য পান করে। রোববার সকালে সে মারা যায়।

শিবচর থানার ওসি মো. মিরাজ হোসেন জানান, লোক মারফত খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠাই। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম