মায়ের লাশের পাশে কাঁদছিল ১৮ দিনের সন্তান

ঢাকা, শনিবার   ০৬ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২২ ১৪২৭,   ২১ রজব ১৪৪২

মায়ের লাশের পাশে কাঁদছিল ১৮ দিনের সন্তান

ঘিওর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:০৬ ২১ জানুয়ারি ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অনবরত কেঁদেই চলছিল ১৮ দিনের শিশু। কান্নার শব্দ শুনে ঘরের ভেতরে গিয়ে শিশুটির মাকে ঝুলতে দেখেন পরিবারের সদস্যরা। পরে তারা পুলিশে খবর দেন। গৃহবধূকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি নিহতের পরিবারের।

বুধবার বিকেলে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়নের হিজুলিয়া গ্রাম থেকে ঝুলন্ত লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের নাম ডলি আক্তার। তিনি উপজেলার হিজুলিয়া গ্রামের হযরত আলীর মেয়ে। ঘটনার পর থেকেই নিহতের স্বামী মহির উদ্দিন পলাতক রয়েছেন।

নিহতের বড় ভাই মো. সানি মিয়া বলেন, দুই বছর ধরে নির্যাতন করলেও আমার বোন সব সহ্য করেছেন। আর এখন ১৮ দিনের ছেলে সন্তান রেখে আত্মহত্যা করতে পারেন না। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

নিহতের শ্বশুড়বাড়ির লোকজন জানান, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ডলি। পরে নবজাতকের কান্নার শব্দ পেয়ে ঘরের ভেতর গিয়ে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান তারা। এরপর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছেন।

ঘিওর থানার ওসি রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব জানান, লাশ উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর