দুই যুবলীগ নেতার হাত-পা ভেঙে দিলো সন্ত্রাসীরা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৯ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২৪ ১৪২৭,   ২৪ রজব ১৪৪২

দুই যুবলীগ নেতার হাত-পা ভেঙে দিলো সন্ত্রাসীরা

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:১৮ ২০ জানুয়ারি ২০২১  

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দুই যুবলীগ নেতা

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দুই যুবলীগ নেতা

পিরোজপুরের নাজিরপুরে মো. রনি হাওলাদার ও মিজানুর রহমান মিঠু নামে দুই যুবলীগ নেতার হাত-পা ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এছাড়া মো. ফারুক হাওলাদর নামের আরেক যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে তারা।

মঙ্গলবার রাতে ওই উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের ভীমকাঠী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর অবস্থায় রনি হাওলাদার ও মিজানুর রহমান মিঠুকে ওই রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত রনি হাওলাদার উপজেলার শ্রীরামাকাঠী বন্দরের বাসিন্দা চুন্নু মিয়ার ছেলে ও  ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি। মিজানুর রহমান মিঠু একই এলাকার জব্বার হাওলাদারের ছেলে ও ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি। আহত মো. ফারুক হওলাদার একই ইউনিয়নের চলিশা গ্রামের বেলায়েত হোসেন হাওলাদারের ছেলে ও উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি।

আহত ফারুক হাওলাদার জানান, রাতে দলীয় কর্মকাণ্ড শেষে তারা তিনজন একটি মোটরসাইকেলে নাজিরপুর থেকে শ্রীরামকাঠী বন্দরের দিকে যাচ্ছিলেন। ওই সময় ভীমকাঠী গ্রামের বালা বাড়ির কাছে সড়কের উপর গাছের গুড়ি ফেলা দেখতে পান তারা। সেখানে পৌঁছাতেই সড়কের দুইপাশ থেকে আরিফুর রহমান সবুজ ও মহিউদ্দিন নামে দুই জনের নেতৃত্বে আরো ২৫-৩০ জন সন্ত্রাসী তাদের ওপর হামলা চালায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ইশিতা সাধক নিপু জানান, মিজানুর রহমান মিঠুর বাম হাত-পা ও ডান পা ভেঙে গেছে। এছাড়া তার মাথায় জখম রয়েছে। রনির দুই হাত-পা ভেঙে গেছে। তার মাথা ও নাক-মুখে আঘাত রয়েছে। দুজনকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. আশ্রাফুজ্জামান জানান, রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থান্দার খাইরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর