ক্যানসারের কাছে হেরে গেলেন ‘গরিবের বন্ধু’ সেলিম কাউন্সিলর

ঢাকা, শনিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৭,   ১৪ রজব ১৪৪২

ক্যানসারের কাছে হেরে গেলেন ‘গরিবের বন্ধু’ সেলিম কাউন্সিলর

চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:১৫ ২০ জানুয়ারি ২০২১  

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আলকরণ ওয়ার্ডের চারবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিম

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আলকরণ ওয়ার্ডের চারবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিম

অর্থের অভাবে পাননি উন্নত চিকিৎসা, বিক্রি করেছেন বাড়ি। তবুও দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারের কাছে মানতে হলো হার।

বলছিলাম ‘গরিবের বন্ধু’ খ্যাত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিমের কথা। ক্যানসারের সঙ্গে দীর্ঘদিনের যুদ্ধ শেষে সোমবার রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। মঙ্গলবার নগরীর পুরাতন রেলস্টেশন চত্বরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

চসিকের আলকরণ ওয়ার্ডের চারবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর ছিলেন সেলিম। ১৯৯৪ সালে চসিক নির্বাচনে প্রথম কাউন্সিলর নির্বাচিত হন সেলিম। পরবর্তীতে ২০০০, ২০০৪ এবং সর্বশেষ ২০১৫ সালে পুনরায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। বারবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেও এবারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন থেকে ছিটকে পড়েন সেলিম। তার বাবা মোহাম্মদ ছালেহ ছিলেন আলকরণ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।

চট্টগ্রামে বিগত দিনে স্বৈরাচার, সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলনে সেলিমের ভূমিকা ছিল অনবদ্য। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যার পর কিশোর বয়সেই বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের দাবিতে ঝাঁপিয়ে পড়েন রাজপথে। সে সময় তিনি নগর ছাত্রলীগের সভাপতি এবং পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের সদস্য নির্বাচিত হন। এছাড়া তৃণমূল পর্যায়ের শত শত কর্মীকে সুস্থ, সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতির দীক্ষাও দিয়েছেন তিনি।

বাল্যকাল থেকে জাতীয় শিশু কিশোর সংগঠন ‘খেলাঘর’ এর সঙ্গে জড়িত ছিলেন সেলিম। পরবর্তীতে খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। এছাড়া শিক্ষা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমে তার সংশ্লিষ্টতা ছিল চোখে পড়ার মতো।

১৯৭৯ সালে আওয়ামী লীগের মিছিলে হামলা চালিয়ে ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেনসহ তিন নেতাকে অপহরণ করে আটকে রাখার পর বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে নিজ দলীয় নেতাদের উদ্ধার করেন সেলিমসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী।

চসিকের সাবেক কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ জামাল হোসেন বলেন, সেলিম আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত সৈনিক। চারবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েও তিনি কখনো নিজের জন্য ভাবেননি। যেখানে অনেক কাউন্সিলর আঙুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছেন, সেখানে সেলিম নিতান্তই একজন জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর