সারিয়াকান্দিতে জামানতই রক্ষা করতে পারলেন না বিএনপির মেয়র প্রার্থী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭,   ১৯ রজব ১৪৪২

সারিয়াকান্দিতে জামানতই রক্ষা করতে পারলেন না বিএনপির মেয়র প্রার্থী

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:০২ ২০ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৫:১৬ ২০ জানুয়ারি ২০২১

সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন

সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন

বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন। কৌশলগত কারণে বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় নারী প্রার্থী দেয়া হলেও তিনি জামানতই রক্ষা করতে পারেননি।

সারিয়াকান্দি পৌরসভায় মোট ভোটার ১৪ হাজার ১৫৮ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১০ হাজার ১৮১ জন। নির্বাচন কমিশনের আইন অনুযায়ী জামানত রক্ষা করতে হলে দরকার ১ হাজার ২৭৩ ভোট। কিন্তু বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবিনা ইয়াসমিন পেয়েছেন ৪৯৪ ভোট।

আইন অনুযায়ী, প্রদত্ত ভোটের ১২ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট কোনো প্রার্থী না পেলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়। এ হিসেবে নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া জামানতের অর্থ ফেরত পাবেন না ওই বিএনপি প্রার্থী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন।

সারিয়াকান্দি পৌরসভায় এবারো জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। বিএনপির প্রার্থী হয়েছেন তৃতীয়। ৬ হাজার ৫৭৪ ভোট পেয়ে জিতেছেন নৌকা মার্কার প্রার্থী মতিউর রহমান মতি।

সারিয়াকান্দিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হয়েছে। এ ভোট নিয়ে বিএনপির প্রার্থীও অভিযোগ করেননি। এমনকি জেলা বিএনপির নেতাদের মুখ থেকেও কোনো অভিযোগ উত্থাপিত হয়নি।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, সারিয়াকান্দিতে ভোট পড়েছে ৭১ দশমিক ৯৯ শতাংশ। সাম্প্রতিক বিভিন্ন নির্বাচনে এত বেশি ভোটার এর আগে কেন্দ্রে আসেনি। প্রদত্ত ভোটের ৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ পেয়েছেন বিএনপির সাবিনা ইয়াসমিন বেবী।

দলীয় প্রার্থীর জামানত হারানো প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম বলেন, প্রার্থী নির্বাচনে আমাদের কোনো ভুল ছিল না। বেবী উচ্চ শিক্ষিতা এবং তার স্বামী বিএনপির বড় নেতা ছিলেন। কৌশলগত কারণে সেখানে নারী প্রার্থী দেয়া হয়েছিল। কিন্তু নির্বাচনের ফলাফলে আমাদের প্রত্যাশা পূরণ হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/এইচএন