খুলনায় পুলিশের সোর্স হত্যা, আটক ৩

ঢাকা, বুধবার   ০৩ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ১৮ ১৪২৭,   ১৮ রজব ১৪৪২

খুলনায় পুলিশের সোর্স হত্যা, আটক ৩

খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:২৫ ১৮ জানুয়ারি ২০২১  

খুলনা মহানগরীতে পুলিশ সোর্স শফিকুল হত্যা মামলার সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৬

খুলনা মহানগরীতে পুলিশ সোর্স শফিকুল হত্যা মামলার সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৬

খুলনা মহানগরীতে পুলিশ সোর্স শফিকুল হত্যা মামলার সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৬। রোববার রাত ১১টার দিকে মহানগরীর লবণচরা থানাধীন আশিবিঘা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন লবণচরার দক্ষিণ মোল্লাপাড়ার বাঙ্গালী গলির বদি মোল্লার ছেলে বাপ্পী মোল্লা, মোল্লাপাড়া মসজিদ গলির আজারুল ইসলাম আজুর ছেলে তরিকুল ইসলাম তারেক ও  খুলনা সদরের মহিষবাড়ী ছোট খালপাড় এলাকার আশিকুর রহমান নিরুর ছেলে নাইমুর রহমান আকাশ।

র‌্যাব-৬ এর সেকেন্ড ইন কমান্ড মেজর মো. আনিসুর রহমান জানান, বহুল আলোচিত পুলিশের সোর্স শফিকুল হত্যার পর থেকেই খুলনা মহানগরের বিভিন্ন স্থানে নিয়মিতভাবে র‌্যাবের গোয়েন্দা তৎপরতা ও অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে হত্যা মামলার সন্দেহভাজন ৩ আসামিকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি দুলাল তালুকদারের সঙ্গে পরস্পর যোগসাজশে হত্যাকাণ্ডটি ঘটিয়েছে বলে তারা স্বীকার করেছে। হত্যা মামলায় জড়িত অন্যান্য আসামিদেরকে গ্রেফতারে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আটককৃত আসামিদেরকে খুলনা মেট্রোপলিটন (কেএমপি) পুলিশের গোয়েন্দা শাখায় হস্তান্তর করা হয়েছে ।

গত ১২ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার দিকে খুলনার লবণচরা থানাধীন বান্দাবাজার এলাকায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অপর তিনজন সোর্সসহ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে একটি ইয়াবা ব্যবসায়ী চক্রকে আটক করতে গেলে সেখানে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ওত পেতে থাকা ইয়াবা ব্যবসায়ী চক্রের সদস্যরা অভিযানকারী দলের উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। এতে গোয়েন্দা পুলিশের একজন এএসআই সহ অপর দুইজন সোর্স গুরুতর আহত হন।

তাৎক্ষণিকভাবে কাছাকাছি থাকা গোয়েন্দা পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহত সদস্যদেরকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক সোর্স শফিকুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করে। 

এ ব্যাপারে কেএমপি লবণচরা থানায় একটি হত্যা মামলাসহ দুটি পৃথক মামলা করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ