কাউন্সিলর ভোটে পরাজয়, কান ধরে পুকুরে ডুব দিলেন ৭ বার

ঢাকা, শনিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৭,   ১৪ রজব ১৪৪২

কাউন্সিলর ভোটে পরাজয়, কান ধরে পুকুরে ডুব দিলেন ৭ বার

মেহেরপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:৩২ ১৮ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০০:৩২ ১৮ জানুয়ারি ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পেশায় ডিস ব্যবসার লাইন বিল উত্তোলনকারী। তার সখ পৌরসভার কাউন্সিলর ভোট করবেন। এলাকার উন্নয়নে ব্যাপক কাজ করবেন। 

২০১৫ সালে গাংনী পৌর সভার নির্বাচনের সময় থেকেই কাউন্সিলর পদে ভোট করার প্রস্তুতি নিয়েছেন তিনি। সে মতে এলাকায় গাংনী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড পূর্ব মালশাদহ গ্রামের মানুষের সঙ্গে মতবিনিময়, ভোটারদের সঙ্গে যোগাযোগ করা, অসহায় এবং সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোসহ নানা ধরনের সামাজিক কাজ করেছেন তিনি। ভোটাররাও তাকে আশ্বাস দিয়েছেন ভোট দেয়ার। এবার ভোট করলেন। 

পৌর সভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডটিতে ৬ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। ৬ জন প্রার্থীর মধ্যে মকলেছুর রহমান মকলেছ( টেবিল ল্যাম্প প্রতীক) মাত্র ১২৫ ভোট পেয়ে ৪ নম্বর হয়েছেন। আর কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন নাসির উদ্দীন। ফাইল ক্যাবিনেট প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৩৩৪ ভোট। 

এছাড়া দ্বিতীয় হয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর নবীর উদ্দিন। ডালিম প্রতীকে তিনি ভোট পেয়েছেন ৩১৭ ভোট। এছাড়া অপর প্রার্থী রবিউল ইসলাম গাজর প্রতীকে পেয়েছেন ২৬৩ ভোট, আজির উদ্দীন (স্ক্রু ড্রাইভার) ৯৫ ভোট ও মনিরুজ্জামান (পানির বোতল) ৮৬ ভোট পেয়েছেন।

ভোটের ফলাফলে চরম হতাশ হয়ে পড়েছেন মকলেছুর রহমান মকলেছ। অবশেষে আজ রোববার বিকেলে তার বাড়ির পাশেই একটি পুকুরে নেমেই কান ধরে ৭ বার ডুব দিয়ে প্রতিজ্ঞা করেন আর কমিশনার প্রার্থী হবেন না।

মকলেছুর রহমান জানান,‘ মানুষ এমনও আছে, কলজা ভুনা কইরা দিলে কবে লবণ কম হইছে। যারা আমাকে ভোট দিতে চেয়েছিলেন তারা কেউ ভোট দেইনি। আর ভোটে যাবো না। রাত আর দিনের ঘুম নষ্ট করবোনা।’ মকলেছুর রহমানের এ ডুব মারা আর প্রতিজ্ঞা এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে