আখাউড়া পৌরসভায় নৌকার মাঝি তাকজিল খলিফা 

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১৪ ১৪২৭,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আখাউড়া পৌরসভায় নৌকার মাঝি তাকজিল খলিফা 

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:০৬ ১৪ জানুয়ারি ২০২১  

আখাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তাকজিল খলিফা কাজল। 

আখাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তাকজিল খলিফা কাজল। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এ নির্বাচনে নৌকার প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তাকজিল খলিফা কাজল। 

বুধবার রাতে ঢাকায় ধানমন্ডির দলীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। একাধিক সূত্র থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। 

এদিকে রাতে তাকজিল খলিফা কাজলের মনোনয়নের খবর এলাকায় পৌঁছার সাথে সাথে  আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা মিছিল বের করে। মিছিলটি পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে তাকজিল খলিফার পক্ষে স্লোগান দিয়ে নেতাকর্মী ও সমর্থকরা আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি ভোট দিয়ে আবারো তাকে নির্বাচিত করার আহবান জানান। এ সময় তারা তাকজিল খলিফা কাজলের মনোনয়ন দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্থানীয় সংসদ ও আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হকসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান। 

তাকজিল খলিফা কাজল বলেন, সব মানুষের দোয়া ও আন্তরিক ভালবাসায় প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। আমাকে নৌকার প্রতীক দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্থানীয় সংসদ ও আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হকসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, আওয়ামী লীগও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। 

তাকজিল খলিফা কাজল আরো বলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে গত পাঁচ বছর সীমিত সম্পদের সর্বোচ্চ ব্যবহার করে পৌর এলাকার বিভিন্ন রাস্তা সংস্কার, পাকাকরণ, বক্স কালভার্ট, ড্রেনের উন্নয়ন, অবকাঠামোর উন্নয়ন,বিভিন্ন পয়েন্টের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিকরণসহ নানা উন্নয়ন বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করেছি। সেইসাথে এ পৌরসভাকে ৩য় শ্রেণি থেকে ১ম শ্রেণিতে উন্নীত করেছি।

নাগরিকদের চাহিদা ও উন্নয়নে বিগত ৫ বছরে ১৭ কোটি ৮১ লাখ ৬৭ হাজার ৫ টাকা ব্যয়ে তিনি ৩৩৯টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন। যার মধ্যে রয়েছে পাকা রাস্তা, ড্রেন কালভার্ট সাইড ওয়াল, বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম