শুধু দমন নয়, জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে চেষ্টা করছে সরকার

ঢাকা, রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৩ ১৪২৭,   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শুধু দমন নয়, জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে চেষ্টা করছে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৩৯ ১৪ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৪:৪০ ১৪ জানুয়ারি ২০২১

‘নব দিগন্তের পথে’ নামে একটি জঙ্গি আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল - ডেইলি বাংলাদেশ

‘নব দিগন্তের পথে’ নামে একটি জঙ্গি আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল - ডেইলি বাংলাদেশ

সরকার জঙ্গিবাদ শুধু কঠোর হস্তে দমন করছে তাই নয়, পাশাপাশি ডি-রেডিক্যালাইজেশন এর মাধ্যমে তাদেরকে ভুল পথ ছাড়িয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টাও করছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মন্ত্রী জানান, জঙ্গিদের ভুল পথ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহ্বান করা হচ্ছে। তারা ফিরে এলে তাদের পুনর্বাসনে সহযোগিতা করা হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ‘নব দিগন্তের পথে’ নামে একটি জঙ্গি আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ।

বৃহস্পতিবার র‌্যাবের হাতে আত্মসমর্পণ করা নয় জঙ্গি ‘ডি-রেডিক্যালাইজেশন অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন’ এর মাধ্যমে সন্ত্রাস ও চরমপন্থার জীবন পরিত্যাগ করে শান্তি ও আলোর পথে তথা সমাজের মূলধারায় নিজেদের সমর্পণ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ কখনো জঙ্গিবাদকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেয় না। প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন জিরো টলারেন্সের কথা। এটা আমরা কখনো বলি না জঙ্গিবাদকে মূলোৎপাটন করেছি। বলেছি জঙ্গিবাদকে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি।

মন্ত্রী বলেন, আমি অনেক দেশেই গিয়েছি। জিজ্ঞাসিত হয়েছি যে, তোমরা কীভাবে জঙ্গিবাদকে মোকাবিলা করছো? বলেছি, বাংলাদেশের জনগণ কখনো জঙ্গিবাদকে সমর্থন করে না বলেই আমরা জঙ্গিবাদকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। দেশে একের পর এক যখন জঙ্গিদের উত্থান ঘটছিলো, তখন আমরা সবাই চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। সেই সময়ে প্রধানমন্ত্রী সারাদেশের কৃষক, শ্রমিক-শিক্ষকসহ দলমত ধর্ম নির্বিশেষে সকল জনতাকে ডাক দিয়েছিলেন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াবার জন্য। তার আহ্বানে সবাই ঘুরে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন, সমাবেশ ইত্যাদি করেছে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, বর্তমানে জঙ্গিবাদের অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। বিশেষ করে র‌্যাব এক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। আজ তারই প্রতিফলন এই আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা শুধু জঙ্গিবাদ কঠোরহস্তে দমন করছি তাই নয়, পাশাপাশি ডি-রেডিক্যালাইজেশন এর মাধ্যমে প্রচেষ্টা গ্রহণ করছি তাদেরকে ভুল পথ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্যে। তার সুফলও ইতিমধ্যেই আমরা দেখেছি। আজ অনেকেই জঙ্গিবাদ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে প্রত্যাবর্তন করেছেন এবং আমরা তাদেরকে ট্রাক্টর, কৃষিজ উপকরণ, নগদ টাকা ইত্যাদি দিয়ে পুনর্বাসন করেছি। বিশেষ করে র‍্যাব এবিষয়ে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে।

মন্ত্রী বলেন, যারা বিভ্রান্ত হয়েছিল, পথ হারিয়েছিল, যারা ভুল পথে ভুল আদর্শ বুকে নিয়েছিলেন তারা আজ বাবা মার কাছে ফিরেছেন, বাবা মার মুখে হাসি ফুটিয়েছেন যা অনেক দিন পর দেখছি। ক্যামেরাবন্দি এ দৃশ্য দেখবে দেশের মানুষ। এজন্য র‌্যাবকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, উন্নয়নের রোল মডেলের সঙ্গে সঙ্গে জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ হচ্ছে রোল মডেল। চরমপন্থি বা জলদস্যু যারাই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চেয়েছে তাদের সুযোগ দেয়া হয়েছে। আমরা তাদেরকে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেছি। আমাদের প্রচেষ্টার বাস্তবায়নের প্রতিফলনই আজকের এই অনুষ্ঠান।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন