ঘরোয়া সভা-সমাবেশে হুংকার দিলেও কর্মসূচিতে নেই বিএনপি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১৪ ১৪২৭,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ঘরোয়া সভা-সমাবেশে হুংকার দিলেও কর্মসূচিতে নেই বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৮ ১৩ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৩:৫৩ ১৩ জানুয়ারি ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঘরোয়া সভা-সমাবেশ আর সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আন্দোলনের হুমকি দিলেও ঘোষিত কর্মসূচিতে মাঠে পাওয়া যায় না বিএনপি নেতাদের।

আইন-শৃঙ্খলাকে তোয়াক্কা না করে সর্বশেষ অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে বিভিন্ন কর্মসূচির ডাক বা দলীয় চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করতে বারবার রাজপথের আন্দোলনের হুংকার দিলেও কর্মসূচি পালনে মাঠে দেখা যায়নি বিএনপির নেতাকর্মীদের। ফলে দলীয়ভাবে ব্যর্থ হয়ে সরকারের অনুকম্পায় কারাগার থেকে বের হতে হয়েছে বেগম খালেদা জিয়াকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক শীর্ষ নেতা বলেন, বিগত দুই-চার বছর ধরে মাঝে মাঝে আন্দোলনের ডাক দেয়া ছাড়া আর কিছুই করতে পারেননি দলের নীতিনির্ধারকরা। বর্তমানে ঘরে বসে জুম সাইটের মাধ্যমে আলোচনা ছাড়া আর কোনো কার্যক্রমই নেই তাদের।

বিএনপির রাজনৈতিক অচলাবস্থার বিষয়ে জানতে চাইলে রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক এ আরাফাত বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা পূর্বে হার-হামেশাই আন্দোলনের হুমকি দিতেন, বর্তমানে তাও দিচ্ছেন না। লাভের লাভ কিছু হচ্ছে না। সত্যি বলতে, বিএনপির জনসম্পৃক্ততা না থাকায় আন্দোলনও গড়ে উঠছে না।

তিনি বলেন, রাজনীতিতে যখন আপনার প্রতারক চরিত্র উন্মোচিত হয়ে যায়, তখন আসলে বক্তৃতা ও হুংকারই আপনার সম্বল হয়। কিন্তু বর্তমানে তাও নেই। নীতি-নৈতিকতা হারিয়ে বিএনপি আজ ঘুমিয়ে আছে। রাজপথে নামার যাদের সাহস নেই, তারাই কেবল বাক্যবাণে যুদ্ধে জড়াতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, রাজপথের কর্মসূচি না থাকায় বর্তমানে বিএনপিকে নিয়ে নানা সমালোচনা করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, নেতারা মুখে আন্দোলনের ফেনা তুললেও সাংগঠনিকভাবে দলকে গোছাতে পারছেন না। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এমন অভিযোগ সত্য। কারণ কিছু বিতর্কিত বিষয় নিয়ে বিএনপি আন্দোলনের প্রেক্ষাপট রচনার চেষ্টা করছে, যা জনমনে নানা প্রশ্নের উদ্রেক করছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন