দেরিতে বাড়ি ফিরেন স্বামী, ক্ষোভে সন্তানকে হত্যা করে ফাঁস দেন স্ত্রী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দেরিতে বাড়ি ফিরেন স্বামী, ক্ষোভে সন্তানকে হত্যা করে ফাঁস দেন স্ত্রী

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:১৭ ৩ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৫:৪২ ৫ ডিসেম্বর ২০২০

দেরিতে বাড়ি ফিরেন স্বামী, ক্ষোভে সন্তানকে হত্যা করে ফাঁস দেন স্ত্রী

দেরিতে বাড়ি ফিরেন স্বামী, ক্ষোভে সন্তানকে হত্যা করে ফাঁস দেন স্ত্রী

পারিবারিক কলহের জের ধরে ২ বছরের মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর ফাঁস দেন মা। বৃহস্পতিবার ভোরে বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বদরপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশু আফরিন জান্নাত ওই এলাকার আমজাদ হোসেন এবং নিহত সালমা বেগম দম্পতির মেয়ে। আমজাদ হোসেন পেশায় কাঠ ব্যবসায়ী।

সালমার শাশুড়ি রোকেয়া বেগম জানান, তার ছেলে আমজাদের সঙ্গে ৮ বছর আগে সালমা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমজাদ ও সালমার সম্পর্ক ভালোই ছিল। মাসখানেক ধরে আমজাদ রাতে দেরি করে বাড়ি ফেরায় সালমার সঙ্গে কলহ দেখা দেয়।

বুধবার রাত ৯টার পর আমজাদ বাড়ি ফেরে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে আমজাদ বাড়ি থেকে বেরিয়ে তার ছোট বোনের বাড়িতে ঘুমাতে যায়।

সকালে তিনি নাতনিকে দেখতে এসে ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ পান। পরে ভেতরে প্রবেশ করে ঘরের মেঝেতে নাতনি আফরিন জান্নাতকে পড়ে থাকতে দেখেন। আর ছেলের বউ সালমা বেগমকে ঘরের আঁড়ার সঙ্গে ফাঁস দেয়া অবস্থায় দেখেন। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে।

মেহেন্দিগঞ্জ থানার ওসি আবিদুর রহমান জানান, আমজাদ হোসেনের বাড়ি থেকে তার স্ত্রী ও দুই বছরের মেয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যেহেতু শিশুটি ও তার মা ছাড়া ঘরের ভেতরে কেউ ছিল না, তাই আশঙ্কা করা হচ্ছে মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যার পর মা আত্মহত্যা করেছেন।

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দুটি উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস/জেডএম