১২ দিনের সন্তান রেখে প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১৩ ১৪২৭,   ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

১২ দিনের সন্তান রেখে প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

পাবনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:১০ ২ ডিসেম্বর ২০২০  

আত্মহত্যা (ফাইল ছবি)

আত্মহত্যা (ফাইল ছবি)

পাবনার চাটমোহর উপজেলায় ১২ দিনের সন্তান রেখে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন খাদিজা খাতুন নামে এক গৃহবধূ। মঙ্গলবার উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা গ্রামে এ দুপুরে ঘটনা ঘটে। তিনি ওই গ্রামের আবু বক্করের মেয়ে।

চাটমোহর সার্কেলের এসপি সজীব শাহনীর এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন।

মৃত খাদিজা খাতুনের স্বজনরা জানান, প্রায় আড়াই বছর আগে পার্শ্ববতী আটঘরিয়ার উপজেলার সুজাপুর গ্রামের সুলতান মাহমুদের সঙ্গে বিয়ে হয় খাদিজার। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝামেলা শুরু হয় তাদের। এরমধ্যে খাদিজা গর্ভবতী হলে তাকে বাবার বাড়িতে রেখে যান স্বামী সুলতান মাহমুদ। এরপর থেকে স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

১২ দিন আগে খাদিজা খাতুন একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। সন্তান হওয়ার খবর স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে জানানোর জন্য যোগাযোগ করেও ব্যর্থ হন খাদিজা। এ নিয়ে কষ্টে ভুগছিলেন তিনি। মঙ্গলবার সবার অগোচরে সদ্যজাত সন্তানকে বিছানায় রেখে ফাঁস নেন তিনি। পরে স্বজনরা টের পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে খাদিজার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে।

চাটমোহর সার্কেলের এএসপি সজীব শাহনীর বলেন, স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের ওপর অভিমান করে ১২ দিনের বাচ্চা রেখে আত্মহত্যা করেছেন খাদিজা খাতুন। বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে এ ব‌্যাপারে কথা বলার চেষ্টা করা হয়। তবে খাদিজার স্বামী বা শ্বশুরবাড়ির কাউকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম