এক টাকায় চিকিৎসা সেবা!

ঢাকা, রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ১১ ১৪২৭,   ০৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

এক টাকায় চিকিৎসা সেবা!

আদনান সাকিব, চট্টগ্রাম ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪০ ২৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:৪৫ ১৩ ডিসেম্বর ২০২০

`বিদ্যানন্দ মা ও শিশু হাসপাতাল`-ছবি ডেইলি বাংলাদেশ

`বিদ্যানন্দ মা ও শিশু হাসপাতাল`-ছবি ডেইলি বাংলাদেশ

আয়েশা বেগম। থাকেন চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলি এলাকায়। স্বামী ইসহাক আলী। দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন শ্বাসকষ্টে। টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছিলেন না। বাড়িতেই পড়ে ছিলেন কয়েক সপ্তাহ। একদিন প্রতিবেশী মাসুদা খাতুনের কাছ থেকে শোনেন কম খরচে চিকিৎসার কথা। কিন্তু এক টাকায় চিকিৎসা সেবার কথা শুনে তার বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছিল।পরবর্তীতে মাত্র এক টাকায় চিকিৎসা সেবা পেয়ে বেশ অবাকই হয়েছেন তিনি। 

আয়েশা বেগম বলেন, টাকার অভাবে স্বামীকে নিয়ে দীর্ঘদিন কষ্টে দিনাতিপাত করছিলাম। প্রতিবেশীর পরামর্শে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন' এর দ্বারস্থ হই। সুচিকিৎসার পাশাপাশি ওষুধও দিয়েছে তারা। সত্যি আমি অবাক হয়েছি। দেশে এখনো এমন সংগঠন আছে।

বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামের দরিদ্র মানুষের সেবায় এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়ে 'বিদ্যানন্দ মা ও শিশু হাসপাতাল' চালু করেছে সংগঠনটি। প্রতিমাসে ১০ হাজার দরিদ্র মানুষকে চিকিৎসাসেবা দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে নগরের পাহাড়তলী সাগরিকা রোডে আটতলা একটি ভবনে হাসপাতালটি চালু করা হয়েছে। 

জানা যায়, নতুন এই হাসপাতালে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিভাগ ছাড়াও করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্তদের সহায়তা দিতে ১৬ শয্যার একটি পৃথক ওয়ার্ডও রাখা হয়েছে। ৫০ শয্যার এ হাসপাতালে ২১ শয্যার জেনারেল ওয়ার্ড, ১২ শয্যার ইমার্জেন্সি ওয়ার্ড ও এক শয্যার ডেন্টাল ইউনিটে সেবা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রান্তিক জনপদে চিকিৎসা দিতে রাখা হয়েছে টেলিমেডিসিন সেবাও। ছিন্নমূল মানুষের সেবায় সার্বক্ষণিক দেশ-বিদেশের অভিজ্ঞ কনসালট্যান্ট যুক্ত থাকবেন এতে। প্রাথমিকভাবে আউটডোর সেবা চালু হলেও পর্যায়ক্রমে ইনডোর সেবা চালু হবে। আর ইনডোর সেবা চালু হলে মাত্র এক টাকা খরচেই সুবিধাবঞ্চিত মানুষ থাকা-খাওয়াসহ সব ধরনের চিকিৎসাসেবা পাবেন এখানে।

সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, এ অঞ্চলের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর একটি বড় অংশ হাসপাতালটি থেকে মাত্র এক টাকায় চিকিৎসাসেবা পাবেন। স্বাস্থ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। 

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পরামর্শক ও নিউইয়র্কভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) ব্যুরো প্রধান জুলহাস আলম বলেন, বিশ্ব দরবারে বিদ্যানন্দের নাম উচ্চারিত হওয়া শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোও বিদ্যানন্দ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করছে। এতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হচ্ছে। নতুন মা ও শিশু হাসপাতাল স্থাপনের উদ্যোগে অনুপ্রাণিত হয়ে সর্বত্র সেবার ধারণা ছড়িয়ে পড়বে বলে আমার বিশ্বাস।

চট্টগ্রাম নগরের পাহাড়তলী থানার জনসংখ্যা প্রায় আড়াই লাখ। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মধ্যাংশে পাহাড়তলী ওয়ার্ডের অবস্থান। এর পশ্চিমে ১২ নম্বর সরাইপাড়া ওয়ার্ড, দক্ষিণে ১২ নম্বর সরাইপাড়া ও ২৩ নম্বর উত্তর পাঠানটুলী ওয়ার্ড। পূর্বে ১৪ নম্বর লালখান বাজার ওয়ার্ড, উত্তরে ৮ নম্বর শুলকবহর ওয়ার্ড ও ৯ নম্বর উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড অবস্থিত। ওয়ার্ডের পার্শ্ববর্তী এলাকায় বড় দাতব্য কোনো চিকিৎসাকেন্দ্র না থাকায় সেবা পেতে নানা ভোগান্তিতে পড়তে হতো এলাকার দরিদ্র বাসিন্দাদের। তবে বিদ্যানন্দের উদ্যোগে নতুন চালু হওয়া হাসপাতালটির মাধ্যমে আশার আলো দেখছেন তারা।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক শিপ্রা দাশ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এ ধরনের একটি হাসপাতাল চালু করা আমাদের স্বপ্ন ছিল। অবশেষে সেটি বাস্তবে রূপ পাওয়ায় আমরা আনন্দিত। এক টাকায় চিকিৎসা পাওয়ার তথ্যটি সাধারণ মানুষের মাঝে পৌঁছে দিতে ক্যাম্পেইন শুরু করেছি। যখন একজন রোগী নামমাত্র টাকার বিনিময়ে চিকিৎসাসেবা নিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে হাসপাতাল ত্যাগ করেন, সেটাই আমাদের বড় প্রাপ্তি।' 

হাসপাতালের সমন্বয়ক জামাল উদ্দিন বলেন, করোনার বিষয়টি মাথায় রেখে এখানে আলাদা কভিড ওয়ার্ড রাখা হয়েছে। দরিদ্র মানুষের পাশাপাশি দুর্গম পাহাড়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষও মাত্র এক টাকায় চিকিৎসা ও ওষুধ পাবেন এখানে। কারো কাছে যদি এক টাকাও না থাকে সেক্ষেত্রে তিনি পুরনো কোনো জিনিস দিয়ে সেবা নিতে পারবেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/AN/জেডএম