রাস্তা পরিদর্শনে গিয়ে ঠিকাদারের কিল-ঘুষির শিকার প্রকৌশলী

ঢাকা, রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৩ ১৪২৭,   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রাস্তা পরিদর্শনে গিয়ে ঠিকাদারের কিল-ঘুষির শিকার প্রকৌশলী

বগুড়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৫ ২৩ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৫৭ ১২ ডিসেম্বর ২০২০

উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদ

উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদ

বগুড়ার কাহালুতে উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. মাজিদ বিন জাহিদকে লাঞ্চিতের অভিযোগে এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। অভিযুক্ত ঠিকাদারের নাম মো. নুরুল ইসলাম ওরফে বিষু।

সোমবার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদ বাদী হয়ে কাহালু থানায় মামলাটি করেছেন।

অভিযোগ রয়েছে, সরকারি টেন্ডারের মাধ্যমে কাহালু উপজেলার নিশ্চিন্তপুর প্রতাপপুরের পানদিঘিতে নতুন রাস্তার কাজ করছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান তাজওয়ার ট্রেড সিস্টেম লিমিটেড। এ কাজটির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৬৭ লাখ ২৯ হাজার ৪০১ টাকা। প্রায় দুই বছর ধরে ওই রাস্তার কাজ করছে ঠিাকাদর প্রতিষ্ঠান। তবে রাস্তাটি এখন কার্পেটিংয়ের জন্য প্রস্তুত বলে ওই প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদার নুরুল ইসলাম জানান। তার কথার প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রকৌশলী আহসান হাবিবেব নির্দেশে ওই রাস্তাটি পরিদর্শনে যান উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদ।

গত শনিবার দুপুরে ওই কাজটি পরিদর্শনে যান তিনি। সেখানে গিয়ে দেখেন, রাস্তার কাজটি খুবই নিম্নমানের হয়েছে, যা এখনো কার্পেটিংয়ের উপযুক্ত হয়নি। এখন কার্পেটিং করা হলে, রাস্তাটি খুব দ্রুতই নষ্ট হয়ে যাবে। বিষয়টি তিনি ঠিকাদার নুরুল ইসলামকে জানান। এতে নুরুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে মাজিদ বিন জাহিদকে গালি-গালাজ করতে থাকেন। একপর্যায়ে ঠিকাদার নুরুল ইসলাম উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদকে কিল-ঘুষি মারেন। ওই সময় জাহিদের সঙ্গে থাকা এলজিইডি অফিসের কার্য-সহকারী আব্দুর রউফকেও মারধর করা হয়।

উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজিদ বিন জাহিদ বলেন, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের কাজ করেছে। আমি উপজেলা প্রকৌশলী মো. আহসান হাবিবের নির্দেশে ওই রাস্তা পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। সেখানে গেলে কথা-বার্তার একপর্যায়ে আমাকে লাঞ্চিত করেন ঠিকাদার নুরুল ইসলাম।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে সোমবার বিকেল পর্যন্ত ঠিকাদার নুরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

কাহালু থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/জেডএম