দুইবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফেরা একজন সফল উদ্যোক্তার গল্প

ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দুইবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফেরা একজন সফল উদ্যোক্তার গল্প

শরীফুল ইসলাম, চাঁদপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:২৮ ১৩ নভেম্বর ২০২০  

সফল উদ্যোক্তা আহাদ ইসলাম

সফল উদ্যোক্তা আহাদ ইসলাম

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার উয়ারুক এলাকার আহাদ ইসলাম প্রমাণ করেছেন- ইচ্ছা থাকলেই ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব। দুইবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে হয়ে উঠেছেন সফল উদ্যোক্তা। করোনাকালে অনলাইনে মাছের ব্যবসা করে পরিবারে সচ্ছলতা ফিরিয়েছেন, হয়েছেন স্বাবলম্বী।

বৃহস্পতিবার কথা হয় আহাদ ইসলামের সঙ্গে। জানালেন পরিবারের অভাব, দুইবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফেরা, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও নিজের উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্প।

আহাদ বলেন, আমি চাঁদপুর সরকারি কলেজে অনার্স চতুর্থ বর্ষে পড়াশোনা করছি। এর মধ্যে আমার দুইবার ব্রেন টিউমার ধরা পড়ে। মৃত্যুর মুখ থেকে বেঁচে ফিরি। সুস্থ হতে না হতেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। পরিবারেও আার্থিক সমস্যা দেখা দিলো। এমন পরিস্থিতিতে বড় ছেলে হিসেবে মানসিক চাপে ভুগছিলাম। পরিবারের জন্য কিছু করার চেষ্টা করি। অনেক খুঁজেও চাকরি না পেয়ে অনলাইনে ব্যবসার পরিকল্পনা করি। ফেসবুকে মাছের হাট নামে একটি পেইজ খুলে ব্যবসা শুরু করি।

সফলতার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ৪-৫ মাস হলো ব্যবসা শুরু করেছি। এর মধ্যেই দুই লাখ টাকার বেশি আয় করেছি। ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অর্ডার পাচ্ছি। পড়াশোনার পাশাপাশি অনলাইনে ছোটখাটো ব্যবসা করে আমার মতো অনেকেই সফল হয়েছেন।

ব্যবসার সম্প্রসারণ প্রসঙ্গে আহাদ বলেন, আমি প্রথমে অনলাইনে তাজা ইলিশ বিক্রি শুরু করি। পরে দেখি ক্রেতারা অন্য মাছও খুঁজছেন। তখন ইলিশের পাশাপাশি দেশি মাছ বিক্রি শুরু করি। এখন কম-বেশি সব মাছের অর্ডারই পাচ্ছি। আগামীতে মাছের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রির পরিকল্পনা করছি।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে এ সফল উদ্যোক্তা বলেন, করোনাভাইরাস আমাদের জীবন পাল্টে দিয়েছে। অনেকেই চাকরি হারিয়েছেন। কেউ কেউ হন্যে হয়ে খুঁজেও চাকরি পাচ্ছেন না। আমি মনে করি যারা চাকরি পাচ্ছেন না, তারা স্বল্প মূলধন নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এতে সচ্ছলতা ফিরবে, বকারত্ব কমবে। সবকিছু আমাদের হাতের নাগালেই আছে, প্রয়োজন শুধু উদ্যোগ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর