একই পরিবারের তিনজনকে অচেতন করে স্বর্ণালঙ্কার লুট করলো সাধু বাবা

ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

একই পরিবারের তিনজনকে অচেতন করে স্বর্ণালঙ্কার লুট করলো সাধু বাবা

চাঁদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৩২ ৫ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:৩৩ ৫ নভেম্বর ২০২০

ভুক্তভোগী খোকন শীল

ভুক্তভোগী খোকন শীল

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় সাধু বাবা সেজে একই পরিবারের তিনজনকে অচেতন করে স্বর্ণালঙ্কার লুটের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার রাতে চৌমহনী উত্তর দুর্গাপুরে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীরা হলেন- ওই গ্রামের শীল বাড়ির খোকন শীল, তার স্ত্রী ঝর্ণা শীল ও ছেলে মিঠুন শীল। বৃহস্পতিবার ভোরে তাদের উদ্ধার করে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা।

জানা গেছে, দুই-তিনদিন ধরে দাড়িওয়ালা এক বৃদ্ধ সাধু বাবা সেজে বাড়ির আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিলেন। রাতে ওই ব্যক্তি খোকন শীলের ঘরে যান এবং পরিবারের উন্নতির জন্য ঝাড়ফুঁক ও জলপড়া দেন। রাতে খাওয়ার কথা বললে তিনি কিছুই খাননি। তাকে ওই ঘরেই থাকতে দেয়া হয়।

শেষ রাতে দিকে খোকন শীলের ঘরের দরজা খোলা দেখতে পান তার বড় ভাইয়ের স্ত্রী বাসনা রাণী। পরে ঘরে ঢুকে দেখেন- সবাই অচেতন অবস্থায় পড়ে আছে, স্টিলের আলমারি, কম্বলসহ ঘরের বিভিন্ন জিনিস এলোমেলো। সাধু বাবাও নেই। পরে বাসনা রাণীর ডাকে সবাই এগিয়ে এসে অচেতন তিনজনকে চাঁদপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

বাসনা রাণী জানান, ঝর্ণা শীলের স্বর্ণের কানের দুল ও নাক ফুল নেই। পরিবারের সবাই অচেতন থাকায় ঘরের আর কী কী লুট হয়েছে তা জানা যায়নি।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল জানান, অচেতন অবস্থায় ভর্তি হওয়া তিনজন শঙ্কামুক্ত আছেন। তাদের চিকিৎসা চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর