উপকূলে কমছে বনাঞ্চল, পরিবেশ রক্ষায় দাবি বনায়নের

ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

উপকূলে কমছে বনাঞ্চল, পরিবেশ রক্ষায় দাবি বনায়নের

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৬:২১ ৫ নভেম্বর ২০২০  

হুমকির মুখে উপকূলীয় প্রাকৃতিক পরিবেশ

হুমকির মুখে উপকূলীয় প্রাকৃতিক পরিবেশ

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে হুমকির মুখে উপকূলীয় প্রাকৃতিক পরিবেশ। সাগরের পানিতে অতিরিক্ত লবণাক্ততা বৃদ্ধির সঙ্গে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রতিদিনই লণ্ডভণ্ড করে দিচ্ছে পিরোজপুরের সন্ধ্যা, বলেশ্বর ও কচা নদীর তীর ঘেষা সবুজ বনায়ন। ফলে এ জেলায় নদীর ভাঙনের মুখে পড়েছে কয়েক হাজার পরিবার।

তবে জেলা প্রশাসন বলছে, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা চিহ্নিত করে সবুজ বনায়নের আওতায় আনা হবে। আর জেলা সামাজিক বন বিভাগ বলছে, প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় গত বছর এ জেলায় প্রায় ৫০ হাজার গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে। 

জানা গেছে, ১৯৭০ সালের ভয়াবহ বন্যা, ২০০৭ সালের সিডর এবং সর্বশেষ ফনী ও বুলবুলের তাণ্ডব থেকে বাঁচাতে প্রাকৃতিক দেয়ালখ্যাত সবুজ বনাঞ্চল স্থানীয়দের জীবন বাঁচালেও জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এ প্রাকৃতিক দেয়াল এখন সাগর গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। হুমকির মুখে পিরোজপুরের সাত উপজেলার ১১ লাখ সাধারণ মানুষ।

সাগরের ঢেউয়ের তোড়ে প্রতিটি জোয়ারে বেড়িবাঁধ বালু বা মাটির স্তর প্রতিদিনই ৫/১০ ইঞ্চি পর্যন্ত নেমে যাচ্ছে নদীর ভূ-গর্ভে। এ কারণে ভেঙে পড়েছে গাছের কাণ্ড, আবার কোনো কোনো গাছের শেকড় বের হয়ে যাওয়ায় এসব গাছ খাদ্য সংগ্রহ করতে পারছে না ফলে মারা যাচ্ছে। বিলীন হচ্ছে নদীপাড়ের কয়েক হাজার পরিবার।

হুমকির মুখে উপকূলীয় প্রাকৃতিক পরিবেশস্থানীয়রা জানায়, সমুদ্রে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থলভাগের এসব গাছের গোড়ায় জোয়ারের পানির চাপে মাটি ও বালি ধুয়ে যাওয়ায় এখন ভেঙে পড়ছে পাড়। মরে যাচ্ছে প্রাকৃতিকভাবে জম্মানো অসংখ্য প্রজাতির গেওয়া, কেওড়া, ছইলা ও নারিকেল, খেঁজুর গাছ। হারিয়ে যাচ্ছে বিস্তীর্ণ এলাকার সবুজ বনাঞ্চল। নদীর পাড় ও চরাঞ্চলের এ অবস্থা রোধ করা না গেলে প্রকৃতি-পরিবেশের ভারসাম্যহীনতার সৃষ্টি হবে। ফলে এ অঞ্চলের মানুষের বসবাসে চরম বিপর্যয় দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

এদিকে জেলা সামাজিক বন বিভাগ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম জানান, প্রাকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গত বছর এ জেলার সাত উপজেলায় প্রায় ৫০ হাজার বিভিন্ন গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে।

ডিসি আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা চিহ্নিত করে সবুজ বনায়নের ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম