প্রিয়তমা স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান, বিষপানে স্বামীর আত্মহত্যা

ঢাকা, রোববার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ২২ ১৪২৭,   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

প্রিয়তমা স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান, বিষপানে স্বামীর আত্মহত্যা

মনোহরদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪৯ ২৮ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৭:৫৫ ২৮ অক্টোবর ২০২০

মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নরসিংদী

মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নরসিংদী

নরসিংদীর মনোহরদীতে স্ত্রীর সঙ্গে অভিমানে মারুফ নামে এক ব্যক্তি বিষপান করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত মারুফ ওই উপজেলার বড়চাপা ইউপির উরুলিয়া গ্রামের শাহাদত মাস্টারের ছেলে। তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার একই উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের এমদাদুল হকের মেয়ে। তিনি মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত।

নিহতের পরিবার জানায়, ১০ বছর আগে আয়েশাকে ভালোবেসে বিয়ে করেন মারুফ। বিয়ের পর স্ত্রীকে নার্সিংয়ে পড়াশোনা করিয়ে সরকারি চাকরি পেতে সহায়তা করেছেন। এমনকি বহু দৌড়ঝাঁপ করে আয়েশাকে নিজ উপজেলা মনোহরদীর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বদলি করান। তাদের মাহিদ ও আলিম নামে দুটি ছেলে রয়েছে।

জানা গেছে, মারুফের মা মনোহরদী সদরে থাকা নিজের কয়েক শতাংশ জমি ছেলেকে লিখে দিয়েছিলেন। সম্প্রতি আয়েশা সেই জমি তার নামে লিখে দিতে মারুফকে চাপ দেন। এতে মারুফ রাজি না হওয়ায় প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এরই জেরে দুইদিন আগে স্বামীর বিরুদ্ধে মনোহরদী থানায় নির্যাতনের অভিযোগ করেন আয়েশা। মঙ্গলবার বিকেলে মারুফকে থানায় ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। সন্ধ্যায় সেখান থেকে ফেরার পথে তিনি বিষপান করেন এবং বিষয়টি স্ত্রীকে জানান। পরে তাকে মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় মারুফকে ঢাকা মিটফোর্ড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই বুধবার সকালে মারুফের মৃত্যু হয়।

মনোহরদী থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, আত্মহত্যার বিষয়টি শুনেছি। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ এখনো কিছু জানায়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর