বিদ্যুতের ১১ কেভি লাইনের গা ঘেঁষে বহুতল ভবন নির্মাণ 

ঢাকা, বুধবার   ২৫ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১১ ১৪২৭,   ০৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বিদ্যুতের ১১ কেভি লাইনের গা ঘেঁষে বহুতল ভবন নির্মাণ 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:৩৭ ২৭ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৯:৩৩ ২৭ অক্টোবর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

কুষ্টিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্র বাবর আলী গেট এলাকায় ১১ কেভি (কিলো ভোল্ট) শক্তি সম্পন্ন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের খুঁটি ও তারের গা ঘেঁষে একটি বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। 

সেখানে ২০ থেকে ২৫ জন শ্রমিক ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন। এতে এসব শ্রমিক ও আশপাশের লোকজন যেকোনো বড় ধরনের দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে রয়েছেন। যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। 

সাবেক ব্যবসায়ী নেতা রাকিবুদজ্জামান সেতু গায়ের জোরে নিয়ম—নীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ভবন নির্মাণ করছেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। 

সরেজমিন দেখা যায়, কুষ্টিয়া শহরের বাবর আলী গেট সংলগ্ন বি সি স্ট্রিটে মসজিদের বিপরীতের জমিতে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সোহাইল টাওয়ার নামের ওই নির্মাণাধীন ভবনের মালিক রাকিবুদজ্জামান সেতুর ভবন নির্মাণ করছেন। ভবনের সঙ্গে গা ঘেঁষা অবস্থায় ১১ কেভি (কিলো ভোল্ট) শক্তি সম্পন্ন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের খুঁটি ও তার রেখে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। ভবন ঘেঁষে বিপজ্জনকভাবে রয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি ও তার। তাছাড়া রাস্তা থেকে বহুতল ভবন নির্মাণের যে দূরত্ব মেনে ভবন নির্মাণ করার নিয়ম রয়েছে। সেটাও মানা হয়নি। 

স্থানীয়রা জানান, গায়ের জোরে নিয়ম—নীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ভবন নির্মাণ করছেন সাবেক ব্যবসায়ী নেতা রাকিবুদজ্জামান সেতু। এতে যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, কাণ্ডজ্ঞানহীনভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ করে যাচ্ছেন সেতু। এই ভবন মালিকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। তা না হলে যে কোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। 

ভবন মালিক রাকিবুদজ্জামান সেতু বলেন, পৌর কতৃর্পক্ষ সার্ভে করেই এই বিল্ডিংয়ের কাজ করার অনুমতি দিয়েছে। এই ভবনের জায়গা আড়াই কাঠার একটু বেশি। ২০১০ সালে এই জায়গা ক্রয় করেছি এবং সব নিয়ম মেনেই ২০২০ সালে ভবনের কাজ শুরু করেছি। 

ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো) কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী প্রণব চন্দ্র দেবনাথ বলেন, বৈদ্যুতিক খুঁটি থেকে ন্যূনতম আড়াই ফিট দূরত্ব বজায় রেখে ভবন নির্মাণ করতে হবে। তাছাড়া নিরাপদ দূরত্ব অবশ্যই মানতে হবে। দ্রুত লোক পাঠাচ্ছি অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

কুষ্টিয়া পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, সড়কের পাশে বহুতল ভবন নির্মাণ করতে হলে ন্যূনতম পাঁচ ফিট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। যদি কেউ এই নিয়ম নীতি না মেনে ভবন নির্মাণ করে তাহলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে প্রথমত মৌখিকভাবে নিষেধ করি। কথা না শুনলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ভবন মালিককে আইনের আওতায় আনা হয়। 

বাবর আলী গেটের পাশে সোহাইল টাওয়ার এর মালিক পৌর আইন না মেনে ভবন নির্মাণ করলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে/এসআর