দুর্গাপূজায় ব্যতিক্রম শিববাড়ী মন্দির, সবকিছুতেই ‘নারী শক্তি’ 

ঢাকা, রোববার   ২৯ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৫ ১৪২৭,   ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

দুর্গাপূজায় ব্যতিক্রম শিববাড়ী মন্দির, সবকিছুতেই ‘নারী শক্তি’ 

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৮ ২৫ অক্টোবর ২০২০  

তবে একেবারেই ব্যতিক্রম শিববাড়ী মন্দির

তবে একেবারেই ব্যতিক্রম শিববাড়ী মন্দির

এবারের শারদীয় দুর্গাপূজায় ময়মনসিংহ জেলায় ৭৭৬টি মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরমধ্যে ময়মনসিংহ মহানগরে ৭৮টি মণ্ডপ রয়েছে। তবে একেবারেই ব্যতিক্রম শিববাড়ী মন্দির। 

এ মন্দিরে পূজার কেনাকাটা থেকে শুরু করে অর্থ সংগ্রহ, আপ্যায়ন ব্যবস্থা, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড, মঞ্চ সাজানো, উপকরণ ক্রয়, প্রসাদ বিতরণ, প্রচারণা, ব্যবস্থাপনাসহ সবকিছুতেই আছেন নারীরা। তাদের এমন আয়োজনে শহরজুড়েই প্রশংসা ছড়িয়েছে। 

খোঁজ নিয়ে জান গেছে, নারীদের উদ্যোগে এমন আয়োজন শুরু হয়েছে ২০০৯ সাল থেকে। এরপর প্রতিবছরই পূজা আয়োজন করে আসছে ‘নারী শক্তি’ নামের একটি সংগঠন। এবার তাদের ১১তম আয়োজন। 

দুর্গোৎসব উদযাপন পরিষদ নামে একটি কমিটি গঠন করে পূজা উদযাপনের বিভিন্ন দায়িত্ব বন্টন করে দেয়া হয়েছে। এবারও পূজা উদযাপনকে ঘিরে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। মূল কমিটির পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন উপকমিটি। এই কমিটি এবং উপকমিটির সবাই নারী। তবে ২০০৯ সালের কমিটির অধীনে এখনো পূজা উদযাপন পরিচালিত হয়ে আসছে। সার্বিক কার্যক্রম দেখভালের জন্য রয়েছে একটি উপদেষ্টা কমিটি। তত্ত্বাবধানে আছেন রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী সুমিতা নাহা।

শিববাড়ি মন্দিরের দুর্গোৎসব উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুচিত্রা সেন বলেন, মণ্ডপে পূজার আয়োজনের নেপথ্যে থেকে নারীরাই সব কাজ করে থাকে। সেই থেকেই তারা এই কাজটিকে সবার সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।

এ ধরনের অনন্য উদ্যোগের মাধ্যমে নারীদের বোধ জাগ্রত করা ও নারী শক্তির ক্ষমতায়নে জোরালো ভূমিকা পালন করবে বলে জানান পূজা উদযাপন পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা বাঁশরী ভট্টাচার্য। 

তিনি আরো বলেন, যেহেতু নারী বিনা সমাজ চলে না তাই নারীদের সম্মিলিত শক্তিই সমাজের পিছিয়ে পড়া নারীদের জেগে উঠতে অনুপ্রেরণা জোগাবে। এই ভিন্নধর্মী আয়োজনে পূজা উদযাপন পর্ষদ ময়মনসিংহ জেলা শাখার পক্ষ থেকেও সার্বিক সহায়তা করা হচ্ছে বলে জানান সংগটনটির সাংগঠনিক সম্পাদক শঙ্কর সাহা। 

তিনি বলেন, এধরনের আয়োজন নি:সন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে এবং পূজা উদযাপনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে যা একটি মডেল হিসেবে অনুসরণযোগ্য।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম