শারীরিক সম্পর্কের পর বিয়ে নিয়ে টালবাহানা, যুবদল নেতা গ্রেফতার

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৭,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

শারীরিক সম্পর্কের পর বিয়ে নিয়ে টালবাহানা, যুবদল নেতা গ্রেফতার

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৩৯ ২৩ অক্টোবর ২০২০  

গ্রেফতার যুবদল নেতা রুহুল আমিন হেলাল

গ্রেফতার যুবদল নেতা রুহুল আমিন হেলাল

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সম্পত্তির প্রলোভন দেখিয়ে স্বামী পরিত্যাক্তা নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের পর বিয়ে নিয়ে টালবাহানা করায় এক যুবদল নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন ভুক্তভোগী নারী।

গ্রেফতার রুহুল আমিন হেলাল ওই উপজেলার ৫ নম্বর চরফকিরা ইউপির ১ নম্বর ওয়ার্ডের আবু বক্কর সিদ্দিক মাস্টারের ছেলে ও ইউপি যুবদলের নেতা। তিনি বিচ্ছু বাহিনী নামে একটি সন্ত্রাসী দলের প্রধান। শুক্রবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী বাবার বাড়িতে গেলে তার চাচা-চাচিরা তাকে বাড়িতে উঠতে দেয়নি। এই সুযোগে যুবদল নেতা হেলাল তাকে বাবার বাড়ির সম্পত্তি পাইয়ে দেয়া ও বিয়ের আশ্বাস দিয়ে কৌশলে বসুরহাট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের খুরশিদ মঞ্জিলের ভাড়া বাসায় নিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। কয়েকদিন পর ওই নারী বিয়ের কথা বললে টালবাহানা শুরু করে হেলাল। পরে বাধ্য হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা করেন তিনি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান বলেন, ভুক্তভোগী নারীর মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে তাৎক্ষণিক যুবদল নেতা হেলালকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। পরে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন অভিযোগকারী। শুক্রবার হেলালকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর