মহিলা শ্রমিকদের উত্ত্যক্তের জেরে সহকর্মীকে পিটিয়ে মারলো দুই ভাই

ঢাকা, বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৭,   ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

মহিলা শ্রমিকদের উত্ত্যক্তের জেরে সহকর্মীকে পিটিয়ে মারলো দুই ভাই

খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:০৩ ২৩ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০০:০৭ ২৩ অক্টোবর ২০২০

পিটিয়ে হত্যা (প্রতীকী ছবি)

পিটিয়ে হত্যা (প্রতীকী ছবি)

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার চন্দনী মহলে মো. রাজন নামে এক মিল শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা করেছে সহকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে সকালে উপজেলার চন্দনী মহলের বেড়িবাঁধ এলাকায় রাজনের দুই সহকর্মী তাকে পিটিয়ে আহত করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, উপজেলার দেয়াড়াস্থ ব্যক্তি মালিকানাধীন জুট টেক্সটাইল মিলসের শ্রমিক চন্দনী মহল গ্রামের ইউসুব আলীর ছেলে রাজন ও একই গ্রামের মিল শ্রমিক দুই ভাই আব্দুর রহিম ও আব্দুর রহমানের সঙ্গে মিলের মহিলা শ্রমিকদের উত্ত্যক্ত করাকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে মিলে ডিউটিরত অবস্থায় কথা কাটাকাটি হয়। যা মিলের ভেতরেই সমাধান করে দেয়া হয়। রাতের ডিউটি শেষে সকালে তারা ট্রলারে চন্দনী মহল বেড়িবাঁধ ঘাটে নামেন। রাতের ঘটনার জের ধরে রহিম ও রহমান দুজনে মিলে চন্দনী রড মিলের কাছে রাজনকে লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকেন।

একপর্যায়ে মাথায় আঘাত পেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। এ সময় স্থানীয়রা রাজনকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। রাজনকে উদ্ধার করতে আসায় মেহেদী নামের এক যুবকও লাঠি পেটার শিকার হয়ে দিঘলিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

দিঘলিয়া থানার ওসি আহসানউল্লাহ চৌধুরী বলেন, রাজনের সহকর্মী আব্দুর রহিম ও আব্দুর রহমান তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পরে রাজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মরদেহ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। এ ঘটনায় রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত কেউ আটক বা মামলা হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম