ভালোবেসে পালিয়ে বিয়ে, চার মাসের মাথায় লাশ হলো রূপবতী চাঁদনী

ঢাকা, বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৭,   ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

ভালোবেসে পালিয়ে বিয়ে, চার মাসের মাথায় লাশ হলো রূপবতী চাঁদনী

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:১৫ ২১ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৮:১৯ ২১ অক্টোবর ২০২০

ভালোবেসে পালিয়ে বিয়ে, চার মাসের মাথায় লাশ হলো রূপবতী চাঁদনী

ভালোবেসে পালিয়ে বিয়ে, চার মাসের মাথায় লাশ হলো রূপবতী চাঁদনী

ভালোবেসে অনিক মিয়াকে পালিয়ে বিয়ে করেন রূপবতী চাঁদনী। বিয়ের চার মাসের মাথায় লাশ হতে হলো তাকে। আর চাঁদনীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার পর অভিযুক্ত স্বামীসহ তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া ইউপির পূর্বগ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে বুধবার সকালে চাঁদনীর মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত চাঁদনী কুমিল্লার চান্দিনার মইছালের সামিমুল হক সোহেলের মেয়ে। তিনি পূর্বগ্রামে স্বামীর সঙ্গে ভাড়াবাসায় থাকতেন।
চাঁদনী চাঁদনীর বাবা জানান, পূর্বগ্রাম এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে অনিক মিয়ার সঙ্গে চাঁদনীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এতে বিয়ের প্রসঙ্গ উঠলে আত্মীয়তা করতে সম্মত হইনি আমরা। চার মাস আগে চাঁদনী আর অনীক পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে। বিয়ের তিন মাস ভালোভাসে তারা সংসার করলেও গত মাসে চাঁদনীকে যৌতুকের জন্য চাপ দেয় অনিক। এজন্য প্রায়ই চাঁদনীর ওপর নির্যাতন চালাতো অনীক। 

তিনি আরো জানান, গত ২০ অক্টোবর যৌতুকের জন্য আবারো মেয়েকে চাপ দেয় অনীক। চাঁদনী যৌতুক এনে দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে মারধর করে। ওই দিন রাতেই এক পর্যায়ে চাঁদনীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে অনীক। 

তিনি অভিযোগ করেনে, শ্বশুরবাড়ির লোকজন চাঁদনী আত্মহত্যা করেছে বলে হাসপাতাল ভর্তি করেই পালিয়ে গেছে অনীক ও তার পরিবারের লোকজন। এখন তারা সবাই পলাতক রয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন, খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে সাতজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ