কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাবার মাথা বিচ্ছিন্ন করল ছেলে

ঢাকা, বুধবার   ২৮ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৩ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাবার মাথা বিচ্ছিন্ন করল ছেলে

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৬ ১৮ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৮:৪৩ ১৮ অক্টোবর ২০২০

নিহতের বাড়িতে স্থানীয়দের ভিড়

নিহতের বাড়িতে স্থানীয়দের ভিড়

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে কোদাল দিয়ে বৃদ্ধ বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে মাদকাসক্ত ছেলে। এ ঘটনায় ছেলে হাসমত আলীকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার রাতে উপজেলার পাহাড়িয়া এলাকার হেংগারচালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছোমেদ আলী একই গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে মাদক সেবনের কারণে সম্প্রতি কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে হাসমত। মাদক সেবনের টাকা না পেলে প্রায়ই বাবা-মাকে মারধর করতো সে। এ কারণে তাকে ঘরের বারান্দার একটি কক্ষে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। শনিবার রাত আনুমানিক ৮টার দিকে শিকল বাঁধা খুঁটি তুলে ফেলে হাসমত। শিকলমুক্ত হয়েই কিছু বুঝে ওঠার আগেই ঘরে ঢুকে তার বাবা ছোমেদ আলীকে লাঠিপেটা করতে থাকে। একপর্যায়ে ঘরে থাকা কোদাল দিয়ে কুপিয়ে তার বাবার ঘাড় থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। এ সময় বাধা দিলে মাকেও পিটিয়ে আহত করে সে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাসমতকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দেন প্রতিবেশীরা। পুলিশ রাতেই লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

শিকল দিয়ে বেঁধে রাখার কারণে বাবার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে হাসমত এ নির্মম ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা এলাকাবাসীর।

ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা করেন নিহতের স্ত্রী। লাশটি রোববার সকালে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ছেলেকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর