রাজনৈতিক দল গঠনের নামে ‘গণচাঁদা’ তুলছেন নুর

ঢাকা, সোমবার   ২৬ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১১ ১৪২৭,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

রাজনৈতিক দল গঠনের নামে ‘গণচাঁদা’ তুলছেন নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:২৩ ১৭ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২০:৩৭ ১৭ অক্টোবর ২০২০

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর-ফাইল ছবি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর-ফাইল ছবি।

নতুন রাজনৈতিক দলের নামে ফেসবুকে দেশবাসীর কাছে গণচাঁদা চেয়েছেন নুর-রাশেদরা। গণমানুষের অধিকার আদায়ের কথা বলে এ চাঁদা চান তারা। তবে রাজনীতিতে এক সময় গণচাঁদাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখলেও এখন তা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দলের নেতারা ব্যক্তিগত সুবিধায় কাজে লাগে। এমনটি দাবি করছেন শিক্ষক ও রাজনীতিকরা।

শুক্রবার ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরসহ ছাত্র অধিকার পরিষদের দুই নেতা রাশেদ খান ও ফারুক হোসেন গণচাঁদা চেয়ে তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে স্ট্যাটাস ও লিফলেট প্রকাশ করেন।

সেখানে তাদের নতুন রাজনৈতিক দল পরিচালনার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে সাহায্য চেয়ে ৮টি মোবাইল ব্যাংকিং নম্বর ও একটি ব্যাক্তি নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর প্রকাশ করেন তারা।

গণচাঁদা চেয়ে নুরুল হক নুর ও ছাত্র অধিকার পরিষদ কর্তৃক প্রকাশিত লিফলেট।

সাধারণ শিক্ষার্থীরা বলছেন, নুর-রাশেদদের পকেট ভারী করার কৌশল হিসেবে এ গণচাঁদা দাবি করা হয়েছে। একজন শিক্ষার্থী বলেন, সাধারণ জনগণের কাছ থেকে টাকা নেয়ার অবশ্যই কোনো উদ্দেশ্য আছে। আরেকজন বলেন, এভাবে তিনি জনগণের কাছ থেকে টাকা নিতে পারেন না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও রাজনীতিকরা বলছেন, চাঁদা তুলে অনেক দল পরিচালনা করে থাকে। তবে সংগঠনের নিজস্ব অ্যাকাউন্টে সেখানে আর্থিক সব কার্যক্রম চলে। তারা বলছেন, ব্যাংক হিসাব ও মোবাইল ব্যাংকিং নম্বরগুলো ব্যক্তিগত নামে থাকায় তা আরো সন্দেহের সৃষ্টি করেছে। সাধারণ মানুষকেও এসব বিষয়ে আবেগপ্রবণ না হয়ে বিচার বিশ্লেষণ করার তাগিদ দিয়েছেন তারা।

সিপিবি সম্পাদক বলেন, একটা সংগঠনের আর্থিক স্বচ্ছতার জন্য অবশ্যই ব্যাংকের মাধ্যমে চাঁদা সংগ্রহ করতে হবে। এটা কোনো মানুষের নামে নয়, সংগঠনের নামে হতে হবে।

>>গণচাঁদার বিজ্ঞপ্তি দেখতে এখানে ক্লিক করুন<<

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ