জোড়া লেগেছে পদ্মাসেতুর সবশেষ স্প্যানের

ঢাকা, রোববার   ০১ নভেম্বর ২০২০,   কার্তিক ১৭ ১৪২৭,   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জোড়া লেগেছে পদ্মাসেতুর সবশেষ স্প্যানের

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:১৬ ১৭ অক্টোবর ২০২০  

সবশেষ স্প্যানের জোড়া লাগানো কাজ সম্পন্ন

সবশেষ স্প্যানের জোড়া লাগানো কাজ সম্পন্ন

দ্রুত এগিয়ে চলছে পদ্মাসেতুর কাজ। বন্যা পরিস্থিতি শেষ হতেই স্বপ্নের এ সেতুতে পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে। এরমধ্যেই ১১ অক্টোবর সেতুর ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর ৩২তম স্প্যান বসানো হয়েছে। এতে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর ৪ হাজার ৮০০ মিটার।

এদিকে, শনিবার মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে শেষ হয়েছে সবশেষ ৪১তম স্প্যান ২ এফ-এর সব অংশের জোড়া লাগানো কাজ। স্প্যানটি সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হবে। এখন শুধু স্প্যানটির রঙের কাজ বাকি রইল। এসব তথ্য জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা।

জানা গেছে, মোট ৪১ স্প্যানের মধ্যে সেতুতে বসাতে আর বাকি রয়েছে নয়টি। এরমধ্যে ছয়টি স্প্যানের রঙ দেয়ার কাজ শেষ হয়েছে। বাকি তিনটির মধ্যে দুইটি স্প্যানের জোড়া লাগানোর কাজ আগেই শেষ হয়েছে। ৪১তম স্প্যানটির জোড়া লাগানোর কাজ শনিবার সকালে শেষ হলো।

প্রস্তুত হওয়া স্প্যানগুলোর মধ্যে ২০ অক্টোবর ৩ ও ৪ নম্বর পিলারের ওপর ৩৩তম স্প্যান বসানো হবে। ২৫ অক্টোবর ৭ ও ৮ নম্বর পিলারের ওপর ৩৪তম স্প্যান, ৩০ অক্টোবর ২ ও ৩ নম্বর পিলারের ওপর ৩৫তম স্প্যান এবং ৪ নভেম্বর ৩৬তম স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। আর ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সব স্প্যান বাসানোর নির্দেশনা রয়েছে সেতু সচিবের।

চলতি বছরের ১৪ মে চীন থেকে এমভি কংসিউসং জাহাজে পদ্মাসেতুর গুরুত্বপূর্ণ মালামাল বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হয়। এতে ১৮০টি ট্রাস কম্পোনেন্টসহ ২০৪১টি স্টিলের তৈরি বিভিন্ন মালামাল ছিল। জাহাজটি সাংহাই ও সিঙ্গাপুর পোর্টে মোট সাতদিন বিরতি (মালামাল লোড-আনলোড) দিয়ে চলতি বছরের জুনে চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছায়। চট্টগ্রাম বন্দরে কাস্টমস শুল্ক পরিশোধ ও ক্লিয়ারেন্সের পর মোংলা হয়ে জুনে জাহাজটি মাওয়া এসে পৌঁছায়। এরপরই মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে সরঞ্জাম দিয়ে স্প্যান তৈরির কাজ শুরু হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর