হেমন্তের প্রথম সন্ধ্যায় নেমে এলো কুয়াশা

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৮ ১৪২৭,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

হেমন্তের প্রথম সন্ধ্যায় নেমে এলো কুয়াশা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০০ ১৭ অক্টোবর ২০২০  

বিন্দু বিন্দু কুয়াশা দেখেই মন বলে হেমন্ত এসেছে দুয়ারে। ছবি: সংগৃহীত

বিন্দু বিন্দু কুয়াশা দেখেই মন বলে হেমন্ত এসেছে দুয়ারে। ছবি: সংগৃহীত

সবুজ শ্যামল ধানক্ষেতে বিন্দু বিন্দু কুয়াশা দেখেই মন বলে হেমন্ত এসেছে দুয়ারে। ধানের ডগায় শিশিরের মুক্তদানা অন্যরকম এক আভা ছড়ায়। মৃদু বাতাস আন্দোলিত করে মনকে। হেমন্তের রূপটাই যেন এমন।

কার্তিক ও অগ্রহায়ণ দুই মাস হেমন্তকাল । তবে এর স্থায়িত্ব বেশি দিন থাকে না। শীতের পূর্বাভাস নিয়ে আসে হেমন্তকাল। কিন্তু গ্রামাঞ্চলে হেমন্তকালেই শীত নেমে যায়। এসময় সকালে ফসলের মাঠে মৃদু শিশির পড়াই জানিয়ে দেয় শীতের আগমন বার্তা।

ঋতু রানি শরতের পরই হালকা কুয়াশা ফেলে আগমন ঘটে হেমন্তের। নগরবাসীরা হেমন্তের সকালের স্বাদ গ্রহণ করতে না পারলেও গ্রামাঞ্চলের মানুষ খুব ভালোভাবে হেমন্তের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন। এসময় নদীর পাড়ের মানুষ প্রকৃতিকে সবচেয়ে কাছ থেকে দেখার সুযোগ পান।

কৃষাণ-কৃষাণীর আশায় বুকবাঁধা স্বপ্ন রচনা নিয়ে যাত্রা হয় হেমন্তের। মূলত উৎসবের ডামাডোল শুরু হয়ে যায় এই হেমন্ত থেকেই। অজস্র বারিধারায় যে তরুপল্লব সবুজে প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছিল তা কার্তিকে এসে অনেকটাই ম্লান হয়ে যেতে থাকে। তবে সেখানেও সতেজতা ছড়ায় শিশির।

হেমন্তের শেষের দিকে গ্রামে আরেকটি দৃশ্য চোখে পড়ে। গাছিরা কুয়াশা ভেঙে ধীরলয়ে হাঁটে, তরতর করে খেজুর গাছে ওঠে। ধারাল দা দিয়ে খেজুর গাছের মাথা চেঁছে রস নামানোর আয়োজন করে। হেমন্তের মাঝখান থেকেই শুরু হয় সেসব রস জ্বাল দিয়ে গুড় বানানোর মহোৎসব। গাঁয়ের অনেক গৃহস্থ বাড়ির উঠোনে বড় উনুন তৈরি করা হয়, তার ওপর তাপাল রেখে খেজুরের রস জ্বাল দেয়া হয়। রস জ্বালের ঘ্রাণে সারা গাঁ ম ম করে।

হেমন্ত মানেই বাহারি ফুলের ছড়াছড়ি । এসময়ের শিউলি, কামিনী, পদ্ম, মল্লিকা, হাসনাহেনা, গন্দরাজসহ অসংখ্য ফুল দেখা যায়। ফুল প্রেমীদের জন্য হেমন্তকাল একটি সুন্দর সময়।

হেমন্তের রূপে মুগ্ধ হয়ে রূপসী বাংলার কবি জীবনানন্দ দাশ লিখেছেন, আবার আসিব ফিরে ধানসিঁড়িটির তীরে এই বাংলায়, হয়তো মানুষ নয় হয়তো বা শঙ্খচিল শালিকের বেশে, হয়তো ভোরের কাক হয়ে এই কার্তিকের নবান্নের দেশে, কুয়াশার বুকে ভেসে একদিন আসিব কাঁঠাল ছায়ায়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে