নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ: ফরিদপুরে ১৪৪ ধারা জারি

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৫ ১৪২৭,   ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ: ফরিদপুরে ১৪৪ ধারা জারি

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৫ ১৭ অক্টোবর ২০২০  

এমপি নিক্সন চৌধুরী -ফাইল ছবি

এমপি নিক্সন চৌধুরী -ফাইল ছবি

একই স্থান ও সময়ে দুই দলের সমাবেশ ডাকায় শনিবার ফরিদপুরের সদরপুরে ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা সদরের এক কিলোমিটারের মধ্যে কোনো প্রকার সভা সমাবেশ বা জমায়েতের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরদিন রোববার সকাল ৯টা পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবত থাকবে বলে জানিয়েছেন ইউএনও পূরবী গোলদার।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চরভদ্রাসন, সদরপুর ও ভাঙ্গা উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য (এমপি) মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে-বিপক্ষে দুটি গ্রুপ শনিবার সকাল ১০টার দিকে পাশাপাশি দুটি স্থানে সমাবেশের ডাক দেয়ায় প্রশাসন এ ব্যবস্থা নেয়।

সদরপুর ইউএনও পূরবী গোলদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যেকোনো প্রকার অনভিপ্রেত পরিস্থিতি রোধ করতে সদরপুর উপজেলা সদরের এক কিলোমিটার স্থানজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। কাউকে এই সীমানার মধ্যে সভা-সমাবেশ বা জমায়েত করতে দেয়া হবে না।

নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ নিয়ে ফরিদপুরে ১৪৪ ধারা জারিসদরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী শফিকুর রহমান বলেন, এমপি নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে চরম মিথ্যাচার ও মামলা দায়েরের প্রতিবাদে সদরপুর স্টেডিয়ামে স্থানীয় জনসাধারণের উদ্যোগে শনিবার সকালে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছিল।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সায়েদিদ গামাল লিপু জানান, এমপি নিক্সন চৌধুরীকে গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে উপজেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক সদরপুর স্টেডিয়ামে শনিবার সকালে বিক্ষোভ-সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, গত ১০ অক্টোবর চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এমপি নিক্সন চৌধুরী ডিসির সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন এবং চরভদ্রাসন ইউএনওকে ফোন করে গালিগালাজ করেন। ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম বাদী হয়ে চরভদ্রাসন থানায় মামলা করেন। এ নিয়ে এমপি নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে-বিপক্ষে ফুঁসে উঠেছে তার নির্বাচনী এলাকা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম