অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই পোলিং এজেন্ট খুঁজে পাচ্ছে না বিএনপি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই পোলিং এজেন্ট খুঁজে পাচ্ছে না বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:১৪ ১৭ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৯:০৬ ১৭ অক্টোবর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সালাহ উদ্দিনের পক্ষে বেশিরভাগ কেন্দ্রেই পোলিং এজেন্ট খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। 

এর আগে এজেন্ট নির্ধারণ করতে কর্মীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও সালাহ উদ্দিন আহমেদের পক্ষে পোলিং এজেন্ট হতে রাজি হতে চায়নি কেউই। হামলা, মামলা ও গ্রেফতারের ভয় না থাকলেও সালাহ উদ্দিনের ওপর ক্ষোভ থেকেই এ অঞ্চলের বিএনপি কর্মীরা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নেয়নি। এমটাই দাবি করেছেন স্থানীয় ভোটাররা। 

এছাড়া মনোনয়ন পাওয়ার পর ডেমরা-যাত্রাবাড়ী এলাকায় শোডাউন তো দূরের কথা, ভালো করে পথসভার আয়োজনও করতে পারেনি সালাহ উদ্দিন। এজন্য বরাবরই তিনি অভিযোগ করেছেন নিজ দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে। যত না ভোট চেয়েছেন, তার চেয়ে বেশি অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তিনি। সব মিলিয়ে এ আসনের অগোছালো প্রার্থী হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন তিনি।
 
বিএনপি নেতা-কর্মীরা জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৪ আসন থেকে অংশ নেয়া সালাহ উদ্দিন আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা তো দূরের কথা, মাঠে নামারও সাহস পাননি।  ভোট পান ২০ হাজারেরও কম। এছাড়া প্রায় এক যুগ সালাহ উদ্দিন আহমেদের বিচরণ ঘটেনি ঢাকা-৫ এলাকায়।

২০০৮ এর নির্বাচনে পরাজয়ের পর অনেকটাই আড়ালে চলে যান সালাহ উদ্দিন আহমেদ। এরপর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি। আর একাদশে অংশ নিলেও সালাহউদ্দিন আহমেদ মনোনয়ন পান ঢাকা-৪ (শ্যামপুর-কদমতলী) এলাকায়। অর্থাৎ সব মিলিয়ে প্রায় এক যুগ ঢাকা-৫ (ডেমরা-যাত্রাবাড়ী) এ দেখা মিলেনি সালাহ উদ্দিন আহমেদের।

রাজনীতির মাঠে সালাহ উদ্দিন আহমেদ ‘দৌড় সালাহ উদ্দিন’ নামে পরিচিত। ২০০৩ সালে পানি, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধানের দাবিতে সালাহ উদ্দিনের নির্বাচনী এলাকার মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। ক্ষোভে ফুঁসে ওঠা মানুষকে বিক্ষোভ বন্ধের হুমকি দিলে, তখনকার এমপি সালাহউদ্দিনকে ধাওয়া দেয় জনতা। তিনি দৌড়ে এলাকা ছাড়েন- এমন ছবি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ‘দৌড় সালাহ উদ্দিন’ নাম মানুষের মুখে মুখে ছড়ায়।

ঢাকা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে এমন একজন ব্যর্থ লোককে মনোনয়ন দেয়ায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ বিএনপির তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। আর এ ক্ষোভ থেকেই তারা নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে দূরে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/জেডআর/জেএইচ