৯৯৯-এ ফোন করে নতুন জীবন পেলেন গৃহবধূ

ঢাকা, সোমবার   ২৬ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১১ ১৪২৭,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

৯৯৯-এ ফোন করে নতুন জীবন পেলেন গৃহবধূ

চরফ্যাসন (ভোলা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০২:১২ ১৭ অক্টোবর ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

যৌতুকের দাবিতে স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি ও ননদ মিলে গৃহবধূ শাহনাজ আকতারকে মারধর করছিলেন।

শাহনাজের গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে তারা। কোনোরকমে ছাড়া পেয়ে প্রাণ বাঁচাতে ফোন করেন জাতীয় হেল্প ডেস্ক নম্বর-৯৯৯-এ। শাহনাজের ফোন পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার দক্ষিণ মঙ্গল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূ শাহানাজ অভিযোগ করেন, ২০১৪ সালে চরফ্যাসন উপজেলার চরকলমী ইউপির মাইনউদ্দিনের ছেলে নেয়ামুল কিবরিয়ার সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তাদের একটি ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী যৌতুক দাবি করে আসছিলেন। এর আগে নেয়ামুলকে দুই লাখ টাকাও দিয়েছেন তার বাবা। কিন্তু তিনি আরো পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন। এ নিয়ে একাধিকবার তাকে মারধর করে নেয়ামুল। 

এরই মধ্যে গোপনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এক মেয়েকে বিয়ে করেন নেয়ামুল। প্রতিবাদ করায় তার ওপর নির্যাতন শুরু করেন স্বামী নেয়ামুল, শ্বশুর মাইনউদ্দিন, শাশুড়ি জাহানারা ও ননদ সৌরভী। বৃহস্পতিবার রাতে ফের তার ওপর চড়াও হন তারা। তাকে মারধর করে এবং গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

অভিযুক্ত নেয়ামুল কিবরিয়ার পরিবারের সদস্যরা পলাতক থাকায় এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য জানা যায়নি।

দক্ষিণ আইচা থানার ওসি হারুন অর রশিদ জানান, এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে