জাতীয় যুব পরিবার পরিকল্পনা সম্মেলন শুরু

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয় যুব পরিবার পরিকল্পনা সম্মেলন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:২৮ ১৬ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ২১:৫৩ ১৬ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে শুরু হয়েছে স্বাস্থ্য অধিকার এবং যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ক বাংলাদেশ ৫ম জাতীয় যুব পরিবার পরিকল্পনা সম্মেলন।

শুক্রবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে দুইদিনের এই সম্মেলনে ভার্চুয়ালি সারাদেশ থেকে প্রায় ৫০০ কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণী অংশ নেয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সম্মেলনে তারা ৮টি প্ল্যানারি সেশন, চারটি প্যারালাল সেশন, নেটওয়ার্কিং ও দক্ষতা উন্নয়ন ট্রেনিং সেশনসহ বিভিন্ন আয়োজনে অংশগ্রহণ করবেন।

সিরাক-বাংলাদেশের উদ্যোগে এই যুব সম্মেলনটি ২০১৬ সাল থেকে শুরু হয়ে এ বছর ৫ম বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যার মাধ্যমে কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার এবং পরিবার পরিকল্পনা সেবা নিশ্চিত করতে ভূমিকা রেখে চলেছে।

এ সম্মেলনে বাংলাদেশ ইয়ুথ হেলথ একশন নেটওয়ার্ক (বিহান), ইউএনএফপিএ বাংলাদেশ, রাইট হেয়ার রাইট নাও বাংলাদেশ, মেরি স্টোপস বাংলাদেশ, কোয়ালিশন অব ইয়ুথ অর্গানাইজেশনস ইন বাংলাদেশ (সিঅয়াইওবি), পাথফাইন্ডার ইন্টারন্যাশনাল, অপশন্স কনসালটেন্সি সার্ভিসেস লিমিটেড, ইউকেএইড, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল, পপুলেশন সার্ভিসেস এন্ড ট্রেনিং সেন্টার এবং ইউবিআর এলাইয়েন্স সহযোগী সংস্থা হিসেবে অংশ নিয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতে সতর্কতার কারণে সম্মেলনটিতে কেবলমাত্র বক্তারা অনুষ্ঠানস্থালে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে ছিলেন এবং অংশগ্রহণকারীরা সম্মেলনের ওয়েবসাইটে বিশেষভাবে নিবন্ধন করে অনলাইন প্ল্যাটফরমের মাধ্যমে যোগ দিয়েছিলেন।

উদ্বোধনী সেশনে সম্মেলনের সেক্রেটারি জেনারেল ও সিরাক-বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক এস এম সৈকতের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. আলী নূর, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক সাহান আরা বানু, ইউএনএফপিএর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ডা. অসা টোরকেলসন, জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মারভিন ক্রিস্টিয়ান এবং যুব প্রতিনিধি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ছাত্রী ফাহমিদা হক রিমতি।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি বলেন, আমাদের প্রায় ১০ বছর আগে শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে। এই দীর্ঘ সময়ে অনেক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। তাই এখন শিক্ষানীতিকে সংশোধন, পরিমার্জন, সংযোজন ও যুগোপযোগী করা প্রয়োজন। এরইমধ্যে দেশের বিপুল জনসংখ্যাকে শিক্ষার আওতায় আনা হয়েছে। এখন প্রয়োজন শিক্ষার গুণগত মান অর্জন।

জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মারভিন ক্রিস্টিয়ান বলেন, আমরা বিশ্বাস করি আজকের তরুণরা দায়িত্ব গ্রহণ ও নেতৃত্ব দেয়ার জন্য প্রস্তুত। এর অন্যতম উদাহরণ হলো গত পাঁচ বছর ধরে এই সম্মেলনের আয়োজন। প্রজনন স্বাস্থ্য তথ্য এবং সেবা পাওয়া সব তরুণ তরুণীর অধিকার। আমরা কিশোর-কিশোরী ও তরুণ তরুণীদের সঠিক সময়ে সিদ্ধান্ত নেয়া এবং নিজের শরীর সম্পর্কে জানা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ