ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের ২৮ বছর পর ধরা পড়ল অপরাধী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৫ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের ২৮ বছর পর ধরা পড়ল অপরাধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২০ ১৬ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৬:২১ ১৬ অক্টোবর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চীনে ২৮ বছর আগে এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত।

বুধবার দেশটির জিয়াংসু প্রদেশের আদালত এই সাজা দেয় বলে চীনা সংবাদমাধ্যম চায়না ডেইলি জানিয়েছে।

১৯৯২ সালের ২০ মার্চ নানজিং শহরে এই ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ৫৪ বছর বয়সী মা জিগ্যাং স্থানীয় ন্যানজিং মেডিকেল কলেজের ছাত্রী লিন’কে অপহরন করে ধর্ষণ করার পর তাকে একটি কুয়ার মধ্যে ফেলে হত্যা করে। এ ঘটনার চারদিন পর লিনের মরদেহের সন্ধান পায় পুলিশ।

দেশটিতে সে সময়ের আলোচিত এই ঘটনার তদন্তে প্রায় ১৫ হাজার মানুষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এছাড়া দেশটির জন নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য প্রদেশের জন নিরাপত্তা ব্যুরোগুলোর কাছেও এটির তদন্তে সহায়তা চাওয়া হয়। তবে সে সময়কার প্রযুক্তিগত সীমাবদ্ধতার কারণে ধর্ষক ও হত্যাকারী সেই ব্যক্তিকে চিহ্নিত করতে ব্যার্থ হয় নিরাপত্তা বাহিনী।

তবে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে নানজিং পুলিশ পেইজিয়ান কাউন্টি পুলিশের কাছ থেকে এ ঘটনা সম্পর্কিত নতুন তথ্য পায়। সেখানে জানানো হয়, আলোচিত সেই ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজন ব্যক্তির বীর্য থেকে সংগৃহীত ডিএনএ’র সঙ্গে এক ব্যক্তির ডিএনএ’র নমুনার আংশিক মিল পাওয়া গেছে। অর্থাৎ, সেই ব্যক্তির সঙ্গে ধর্ষণ ও হত্যাকারীর রক্তের সম্পর্ক রয়েছে।

এ ঘটনার পর সেই ব্যক্তির পরিবারের এগারো সদস্যের ডিএনএ পরীক্ষা করে অবশেষে সেই ধর্ষককে শনাক্ত করতে সক্ষম হয় পুলিশ। এর মাধ্যমে অবসান ঘটে ২৮ বছর ধরে অমীমাংসিত থাকা সেই রহস্যের।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী