পিরোজপুরে কাঠশিল্পে কমছে বেকারত্ব, বাড়ছে কর্মসংস্থান 

ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পিরোজপুরে কাঠশিল্পে কমছে বেকারত্ব, বাড়ছে কর্মসংস্থান 

ইমন চৌধুরী, পিরোজপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৪ ৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৫:৩৮ ৫ অক্টোবর ২০২০

পিরোজপুরে কাঠের ফার্নিচারের খাট, শো-কেজ, ওয়ারড্রব, ড্রেসিং টেবিল, ডাইনিং টেবিল, চেয়ার-টেবিলসহ বিভিন্ন আসবাব তৈরি ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। নান্দনিক কারুকাজের এসব ফার্নিচার ছড়িয়ে পড়েছে জেলার সবখানেই। এ কারণে কাঠমিস্ত্রিদের কাজের চাপও বেড়েছে। এর ফলে জেলায় বেকারত্ব কমেছে, বেড়েছে কর্মসংস্থান। 

তবে ফার্নিচার দোকান মালিকরা বলছেন, তাদের শিল্পের বেশি চাহিদা থাকলেও মিলছে না সঠিক মুনাফা। আর ডিসি বলছেন, কাঠশিল্পের আরো উন্নয়নের জন্য সব সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে। 

কাঠশিল্প শ্রমিক ইউনিয়নের তথ্য মথে, এ জেলায় ছোট-বড় কমপক্ষে ৪শত কাঠের ফার্নিচার মার্ট গড়ে উঠেছে। সুন্দর কারুকাজ ও ডিজাইন থাকার কারণে এসব আসবাবের কদর বেড়েছে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চলে যাচ্ছে এখানকার তৈরি কাঠের বিভিন্ন ফার্নিচার। তাছাড়া তুলনামূলকভাবে কম মূল্যে পেয়ে এখানকার সরকারি চাকরিজীবীরাও দেদার কিনছে কাঠের ফার্নিচার। ফলে চাহিদাও বাড়ছে দ্রুতগতিতে। 

তবে কাঠমিস্ত্রি ও দোকান মালিকরা জানান, কাঠ ও রংয়ের দাম বেশি হওয়ায় ফার্নিচারের আসবাবপত্র বিক্রি করে ন্যায্য মূল্য পাওয়া যাচ্ছে না। শহরে বিভিন্ন স্থান থেকে নিম্নমানের ফার্নিচার বাজারেও আসায় বেশি দাম দিয়ে ফার্নিচার কিনছেন না ক্রেতারা। তাই তাদের লোকসান গুণতে হচ্ছে। সরকারের কাছে তাদের দাবি, সল্প সুদে সরকারি সহয়তা পেলে এই শিল্প বাঁচবে বলে জানান তারা।

কাঠ শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে গঠন হয়েছে পিরোজপুর কাঠশিল্প শ্রমিক ইউনিয়ন। এই শ্রমিক ইউনিয়ন সংগঠনটির সভাপতি আশিষ দাস বলছেন, কাঠ শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে আমরা সব সময় কাছ করছি। সরকারের কাছে আমাদের শ্রমিক ইউনিয়নের দাবি বাইরের নিম্নমানের ফার্নিচার যেনো বাজারে এনে বিক্রি করতে না পারে। তাহলে আমরা বাঁচবো শ্রমিক বাঁচবে।

এদিকে কাঠশিল্প আরো উন্নয়নের জন্য সহযোগিতার কথা বললেন ডিসি আবু আলী সাজ্জাদ হোসেন। সল্প সুদে শ্রমিকদের ব্যাংক ও এনজিওগুলো আর্থিক সহযোগিতা করবে এমটাই দাবি তাদের।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম/এমআর