স্কুলছাত্রকে গলা কেটে খুন, ড্রাইভার সেজেও রক্ষা পেল না কবির

ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৭ ১৪২৭,   ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

স্কুলছাত্রকে গলা কেটে খুন, ড্রাইভার সেজেও রক্ষা পেল না কবির

নরসিংদী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:১৯ ৩ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৬:৪৭ ৩ অক্টোবর ২০২০

স্কুলছাত্রকে গলা কেটে খুন, ড্রাইভার সেজেও রক্ষা পেল না কবির

স্কুলছাত্রকে গলা কেটে খুন, ড্রাইভার সেজেও রক্ষা পেল না কবির

পারিবারিক-সামাজিক বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের সন্তানকে গলা কেটে খুনের অভিযোগ উঠে কবির মিয়ার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে চলে যান কবির। নিজের বাবা নামসহ ঠিকানা পরিবর্তন করে তিনি পুরোদমে বনে যান ট্রাকের ড্রাইভার। তবে বুদ্ধি খাটিয়েও গ্রেফতার থেকে রক্ষা পেলেন না তিনি।

গত শুক্রবার ঘটনার প্রায় তিন বছর পর গাজীপুরের শ্রীপুর থেকে কবিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

শনিবার দুপুরে সিআইডির ঢাকা বিভাগের ডিআইজি মাইনুল হাসান বলেন, পারিবারিক-সামাজিক বিরোধের জেরে ২০১৭ সালের ১২ অক্টোবর রাতে নরসিংদীর ইউপির চেয়ারম্যান রিনা বেগমের ছেলে সোহরাব হোসেন ওরফে মুসাকে পরিকল্পিতভাবে বাসা থেকে ডেকে নেয়া হয়। পরে তার গলা কেটে খুন করা হয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা রিনা বেগম বাদী হয়ে কবিরসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে বেলাব থানায় মামলা করেন। পরে এ মামলার তদন্তভার নেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআইয়ের তদন্ত শেষে আদালতকে চার্জশিট জমা দেয়া হয়। কিন্তু ২০২০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি আদালত মামলাটির পুনরায় তদন্ত করতে সিআইডিকে দায়িত্ব দেয়। এতে ঘটনার মূলহোতা কবিরকে শনাক্ত করে গ্রেফতার করা হয়। এ হত্যাকাণ্ডের মামলায় তিন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ