নারীদের টার্গেট করেই দৌরাত্ম্য বাড়ছে নারী ছিনতাইকারীদের

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নারীদের টার্গেট করেই দৌরাত্ম্য বাড়ছে নারী ছিনতাইকারীদের

মো. রাকিবুর রহমান, চট্টগ্রাম মহানগর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৪:৪৪ ২ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০৪:৪৫ ২ অক্টোবর ২০২০

আটক নারী ছিনতাইকারী (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

আটক নারী ছিনতাইকারী (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

তারা নারী ছিনতাইকারী। তাদের টার্গেটও নারী। কখনো গাড়িতে যাত্রীবেশে, কখনো একা পেয়ে জটলা বেঁধে, আবার কখনো ব্লেড বা ছুরি ধরে ছিনিয়ে নেয় টাকা, মোবাইল ফোন ও দামি জিনিসপত্র।

চট্টগ্রামে সম্প্রতি পুলিশের হাতে আটক হয়ে কারাগারে গেছে চক্রটির অনেকেই। তবুও যেন কমছে না তাদের দৌরাত্ম্য। জামিনে বেরিয়ে ফের জড়িয়ে পড়ছে ছিনতাইয়ে।

বুধবার দুপুরে নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল থেকে আড়াই মাস বয়সী শিশুকে টিকা দিয়ে ফিরছিলেন খাদিজা আক্তার। পায়ে হেঁটে কিছুদূর যাবার পর টেরি বাজার এলাকায় তাকে ঘিরে ধরে হাতে থাকা টাকা ও স্বর্ণালংকার ভর্তি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় সাত নারী। এ সময় খাদিজার চিৎকারে টহল পুলিশের একটি দল ব্যাগসহ তাদেরকে আটক করে। 

চলতি বছরের ১৩ ফেব্রুয়ারি রাতে নগরীর স্টেশন রোডের মোটেল সৈকতের সামনে মাসুম ও ফয়সাল নামে দুই যুবকের গলায় ব্লেড ধরে ৯শ’ টাকা ছিনিয়ে নেয় তিন নারী। এ সময় মাসুম ও ফয়সালের চিৎকারে পুলিশ ধাওয়া করে তিনজনকে আটক করে।

গত বছরের ১৮ মার্চ দুপুরে নাতনিকে স্কুল থেকে আনতে চকবাজারের উদ্দেশে আন্দরকিল্লা থেকে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় উঠেন এক নারী। এ সময় রিকশাটিতে যাত্রী হিসেবে উঠেন আরো তিন নারী। 
এরমধ্যে দুইজন বসেন তার দুই পাশে। রিকশাটি রহমতগঞ্জ কেবি আব্দুস সাত্তার রোডের রহমানিয়া হোটেলের সামনে পৌঁছলে ওই নারীকে চেপে ধরে দুই পাশের দুইজন এবং একজন গলায় থাকা সোনার চেইন টান দিয়ে খুলে নেয়। এ সময় তার চিৎকারে স্থানীয়রা তাদের তিনজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

একই বছরের ২৪ এপ্রিল নিউ মার্কেটের উদ্দেশে বহদ্দারহাট থেকে বাসে উঠেন নারী সাংবাদিক মরিয়ম জাহান মুন্নী। আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ এলাকায় পৌঁছলে বাসটিতে উঠেন দুই নারী। উঠার পর থেকে তারা বারবার ওই নারী সাংবাদিককে ধাক্কা দিতে থাকেন। এসবে বিরক্ত হয়ে লালদীঘির পাড় এলাকায় গিয়ে বাস থেকে নেমে যান তিনি। এ সময় হঠাৎ পেছন থেকে তার গলার চেইন টেনে নিয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ওই দুই নারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।  

নগর পুলিশের কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর বলেন, ছিনতাইকারী পুরুষ বা নারী যাই হোক না কেন অপরাধের প্রতি জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত রেখে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছে নগর পুলিশ। এ ধরনের অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। অপরাধকে সমূলে উৎপাটন করতে নগরবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম