রিফাতের বাবার নিরাপত্তায় অস্ত্রধারী পুলিশ মোতায়েন

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৮ ১৪২৭,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

রিফাতের বাবার নিরাপত্তায় অস্ত্রধারী পুলিশ মোতায়েন

বরগুনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:২৮ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

রিফাতের বাবার নিরাপত্তায় অস্ত্রধারী পুলিশ মোতায়েন -ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রিফাতের বাবার নিরাপত্তায় অস্ত্রধারী পুলিশ মোতায়েন -ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বরগুনার আলোচিত শাহনেওয়াজ রিফাত(রিফাত শরীফ) হত্যা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে বাদী রিফাতের বাবা আ. হালিম দুলাল শরীফের নিরাপত্তায় দুইজন অস্ত্রধারী পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও নিরাপত্তার আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে রিফাত শরীফের বাড়িও। 

মঙ্গলবার রাতে পুলিশি নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনার অ্যাডিশনাল এসপি মহরম আলী। 

অ্যাডিশনাল এসপি বলেন, রিফাতের বাবা ও তার পরিবারের নিরাপত্তায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। রিফাতের বাবার নিরাপত্তায় সার্বক্ষণিক দুইজন গানম্যান তার সঙ্গে থাকবেন। 

নিহত রিফাতের বাবা আ. হালিম দুলাল শরীফ বলেন, সার্বক্ষণিক নিরাপত্তায় বরগুনা জেলা পুলিশের দুজন অস্ত্রধারী সদস্য আমার সঙ্গে থাকছেন। এছাড়া বাড়িতে পুলিশ সদস্যরা ডিউটি করবেন।

পুলিশ মোতায়েনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি আরো বলেন, রায়কে কেন্দ্র করে আমাদের ওপর হামলার আশঙ্কা রয়েছে। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলাম। সার্বক্ষণিক আমাদের সঙ্গে পুলিশ থাকায় আমাদের সে শঙ্কা দূর হয়েছে। এ জন্য বরগুনার এসপিসহ পুলিশের সব কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ জানাই।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে নয়ন ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে রিফাত শরীফকে গুরুতর আহত করে। এরপর বীরদর্পে অস্ত্র উঁচিয়ে এলাকা ত্যাগ করে তারা। গুরুতর আহত রিফাত বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওইদিনই মারা যান।

গত ১ সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুই ভাগে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় পুলিশ। একই সঙ্গে রিফাত হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

গত ১ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালত। অন্যদিকে গত ৮ জানুয়ারি রিফাত হত্যা মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন বরগুনার শিশু আদালত।

এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামি মো. মুসা এখনো পলাতক রয়েছেন। এছাড়াও নিহত রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ অপ্রাপ্তবয়স্ক ৮ আসামি উচ্চ আদালত এবং বরগুনার শিশু আদালতের আদেশে জামিনে রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম