নিজেকে বাঁচাতে ধর্ষণ চেষ্টাকারীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন নারী

ঢাকা, শনিবার   ৩১ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৬ ১৪২৭,   ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নিজেকে বাঁচাতে ধর্ষণ চেষ্টাকারীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন নারী

চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫১ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ০০:৩৬ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ধর্ষণের চেষ্টাকারী মো. নাঈম

ধর্ষণের চেষ্টাকারী মো. নাঈম

ভোলার চরফ্যাশনে ধর্ষণের হাত থেকে নিজেকে বাঁচাতে ধর্ষণ চেষ্টাকারীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছেন এক নারী। রোববার রাতে ওই উপজেলার রসুলপুর ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ভাষানচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের চেষ্টাকারী মো. নাঈম ওই গ্রামের আজম আলী সরদারের ছেলে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভুক্তভোগী নারী জানান, তার স্বামী নদীতে মাছ শিকার করেন। স্বামীর পেশার পাশাপাশি নকশিকাঁথা তৈরি ও বিক্রি করেন তিনি। ধর্ষণ চেষ্টাকারী নাঈম তার স্বামীর বন্ধু। সেই সুবাদে তাদের বাড়ি যাওয়া-আসা করতো। তিন মাস ধরে তাকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিল নাঈম। বারবার প্রত্যাখ্যান ও সতর্ক করেও নাঈমকে ফেরাতে পারেননি ভুক্তভোগী নারী।

তিনি আরো বলেন, রোববার রাতে তার স্বামী নদীতে মাছ শিকারে যাওয়ায় বাড়ি ফাঁকা ছিল। তিনি ঘুমানোর আগে টয়লেটে যান। এ সুযোগে ঘরে ঢুকে খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে নাঈম। এরপর টয়লেট থেকে ঘরে ফিরে দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়েন ওই নারী। হঠাৎ মুখ চেপে ধরে তার জামা-কাপড় ছিঁড়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় নাঈম। একপর্যায়ে তার সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু হলে ধর্ষণ থেকে বাঁচতে খাটের পাশে থাকা সুঁই-সুতার বক্স থেকে ব্লেড নিয়ে নাঈমের পুরুষাঙ্গ কেটে দেন। ওই সময় নাঈমের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী নারী আরো জানান, ঘটনার পর থেকে নাঈমের পরিবার ও স্থানীয় কয়েকজন মাদকসেবী বিভিন্নভাবে তাকে ভয় দেখাচ্ছে। এতে তিনি ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শোভন কুমার বশাক বলেন, রোববার রাত পৌনে ৩টার দিকে নাঈমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রসুলপুর ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার এমদাদুল হক মিঠু জানান, নাঈম এর আগেও এলাকার কয়েকজন নারীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছিল। ওসব ঘটনায় কয়েকবার তাকে জরিমানা করা হয়। সে এলাকার চিহ্নিত লম্পট।

চরফ্যাশনের শশীভূষণ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী নারী। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/জেএইচ