রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা, বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৬ ১৪২৭,   ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

রাজশাহী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০০ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:২১ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আবুল কালাম আজাদ

রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আবুল কালাম আজাদ

অর্থ আত্মসাতের দায়ে রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. আবুল কালাম আজাদের মামলা করেছেন দুদকের রাজশাহী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আল-আমিন। বুধবার মামলাটি করা হয়।

মামলায় সাবেক সচিব ড. আনারুল হকসহ  আরো ১৩ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ঠিকাদারকে আসামি করা হয়েছে। এতে আসামিদের বিরুদ্ধে বোর্ডের বিভিন্ন স্থাপনা মেরামত, সংস্কার ও নির্মাণের কাজ না করে ১৮ লাখ ৪৪ হাজার ৮৩১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯ ধারাসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় আসামিরা শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।
 
মামলার অপর আসামিরা হলেন, উপসচিব (ভান্ডার) মোছা. সেলিনা পারভীন, নিরাপত্তা অফিসার গোলাম ছরওয়ার, ঠিকাদার শওকত আলী,, ঠিকাদার ইসরাফিল হোসেন, উপসচিব (ভান্ডার) নেসার উদ্দিন আহম্মেদ, উপবিদ্যালয় পরিদর্শক মানিক চন্দ্র সেন, সহকারী প্রোগ্রামার ফরমান আলী, সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জহিরুল হক, মসজিদের ইমাম আবুল হাশেম মো. রহমতুল্লাহ, ডাটা এন্ট্রি/কন্ট্রোল অপারেটর আজহার আলী, ঠিকাদার রওশন রেজভী (আলম) ও ঠিকাদার রিপন রায় (কুশ)।

দুদকের রাজশাহী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম জানান, মামলাটি দুদক কার্যালয়ে রুজু করা হয়। মামলায় নয়টি অভিযোগ আনা হয়েছে।

তিনি বলেন, আসামিরা ব্যক্তিতভাবে লাভবান হওয়ার জন্য একে অপরের সহায়তায় ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে নয়টি কাজের নামে ২০১৫-২০১৬ থেকে ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে লাখ ৪৪ হাজার ৮৩১ টাকা আত্মসাৎ করে।

এর মধ্যে রয়েছে, নগরীর বেলদারপাড়ার চেয়ারম্যানের অফিস কাম বাসভবনের সংস্কার কাজ, মোটরসাইকেল এবং জীপগাড়ি রাখার গ্যারেজ নির্মাণ, পুরাতন ভবনের ১ম ও ২য় তলার রং করা, পুরাতন ভবনের ৩য় ও ৪র্থ তলার রং করা এবং পুরাতন ভবনের পূর্ব, দক্ষিণ ও পশ্চিম পার্শ্বে ড্রেন নির্মাণ কাজ।

এছাড়া উপকরণ শাখা ও কর্মচারী ইউনিয়ন কক্ষের মূল রাস্তা নির্মাণ কাজ, গ্যারেজের সামনে রাস্তা উচুকরণ কাজ, প্রশাসনিক ভবনের সামনের রাস্তা পাথর সিমেন্ট দ্বারা উচুকরণ কাজ, পুরাতন ভবনের স্কুল কলেজ নিবন্ধন শাখার পূর্ব প্রাচীর সংলগ্ন পূর্ব ও দক্ষিণ প্রান্ত এবং ভবন সংলগ্ন পূর্ব দক্ষণ পার্শ্ব ভরাটসহ সাপোর্ট ওয়াল দ্বারা সোলিং রাস্তাকরণ কাজ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ