কুড়িগ্রামে সহকর্মীকে হত্যায় কাঠমিস্ত্রির মৃত্যুদণ্ড

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৭ ১৪২৭,   ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কুড়িগ্রামে সহকর্মীকে হত্যায় কাঠমিস্ত্রির মৃত্যুদণ্ড

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:১১ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ০৪:০১ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুল করিম

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুল করিম

কুড়িগ্রামে সহকর্মী যোগালি আদম আলীকে হত্যার দায়ে কাঠমিস্ত্রি আব্দুল করিমকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এই রায় দেন জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নান। এ সময় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুল করিম আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম পৌরসভার ভেলাকোপা দক্ষিণ মরাকাটা গ্রামের কাছুয়া মামুদের পুত্র কাঠমিস্ত্রি আব্দুল করিমের সঙ্গে উত্তর ভেলাকোপা গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে আদম আলী যোগালির কাজ করতেন। এ অবস্থায় বিগত ২০১১ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে ভেলাকোপা দক্ষিণ মরাকাটা এলাকার শফি মিয়ার মুদির দোকানের সামনে আদম আলী তার পাওনা মজুরি চাইলে আব্দুল করিমের ঝগড়া বাঁধে।

আরো পড়ুন: ইতালির হাসপাতালে ১২ বছর চিকিৎসার পর মৃত্যু, লাশ এলো দেশে

এরই একপর্যায় আব্দুল করিম তার ব্যাগ থেকে বাটাল বের করে আদম আলীর পেটে ঢুকিয়ে দেয় এবং কপালে আঘাত করেন। এতে গুরুতর আহত আদম আলীকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে জরুরি বিভাগে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার পরদিন ২২ ফেব্রুয়ারি নিহত আদম আলীর পিতা আবেদ আলী বাদী হয়ে আব্দুল করিমকে আসামি করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। উভয়পক্ষের সাক্ষ্য প্রমাণে মামলাটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষে পাবলিক প্রসিকিউটর এসএম আব্রাহাম লিংকন এবং আসামি পক্ষে অ্যাডভোকেট রুহুল আমিন মামলাটি পরিচালনা করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম