দুধের খালি পটের জন্য শিশুকে নির্মমভাবে পেটালেন হোটেল মালিক

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১২ ১৪২৭,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দুধের খালি পটের জন্য শিশুকে নির্মমভাবে পেটালেন হোটেল মালিক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:২৫ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৪৬ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১৩ বছরের এক শিশুকে দুধের খালি পট চুরির অপবাদ দিয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন রাসেল মিয়া নামে এক হোটেল ব্যবসায়ী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার বোগলাবাজার ইউপির বোগলাবাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিশু জুয়েল মিয়া উপজেলার বোগলাবাজার ইউপির নেপালকুটি গ্রামের রিকশাচালক রুবেল মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় রাতেই দোয়রাবাজার থানায় রুবেল মিয়া বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত এক সপ্তাহ আগে উপজেলার বোগলাবাজারের হোটেল ব্যবসায়ী রাসেল মিয়ার হোটেলের দুধের কয়েকটা খালি পট কে বা কারা নিয়ে যায়। তার এ দুধের খালি পট জুয়েল মিয়া নিয়েছে সন্দেহে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাকে হোটেলের ভেতরে লোহার রড দিয়ে মারধর করেন। তার মারধরের চিৎকারে বাজারের লোকজনসহ স্থানীয় ইউপির সাবেক সদস্য বুলবুল মিয়া ও বোগলাবাজার কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মন্নান মিয়াসহ স্থানীয়রা তাকে রাসেল মিয়ার কাছ থেকে উদ্ধার করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। সেখানে ওই শিশু প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। পরে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা করেন।

শুক্রবার জুয়েল মিয়াকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসার পর ডাক্তাররা জখম গুরুতর দেখে পায়ের এক্সরে করতে বলেছেন। 

আহত শিশুর বাবা রুবেল মিয়া বলেন, আমি এর বিচার চাই। আমার ছেলে দুধের কোনো খালি পট আনেনি। এরপরও কাদির মিয়ার ছেলে বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী রাসেল মিয়া তাকে ঘরে ঢুকিয়ে লোহার রড দিয়ে মেরেছে। ছেলেটির সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনার রাতে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছিলাম। 

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত হোটেল ব্যবসায়ী রাসেল মিয়ার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 
   
এ ব্যাপারে দোয়ারাবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ নাজির আলম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত করে এসেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ