মেয়েকে বাঁচাতে ছেলের লাঠির আঘাতে হাসপাতালে মা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১২ ১৪২৭,   ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মেয়েকে বাঁচাতে ছেলের লাঠির আঘাতে হাসপাতালে মা

লালমনিরহাট ও হাতীবান্ধা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:০৫ ১৬ আগস্ট ২০২০  

জমিনা বেগম

জমিনা বেগম

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে মেয়ের বসত বাড়ি নির্মাণ করতে গিয়ে ছেলের লাঠির আঘাতে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এক বৃদ্ধা। 

শনিবার দুপুরে ওই উপজেলার শ্রীরামপুর ইউপির পূর্ব বটতলী বাজার ডাঙ্গীরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

জানা গেছে, ওই এলাকার তফির উদ্দিনের ৬ ছেলে ও ১ মেয়ের মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে জমির ভাগ বণ্টন নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। পাঁচ ভাই বোন মালেকা বেগমকে বসতবাড়ি তৈরির জন্য প্রস্তাব দিলেও মোজাফফর আলী নামে এক ভাই এতে বাধা দেয়। মালেকা বেগ বাবার কাছ থেকে প্রাপ্ত জমিতে বাড়ি তৈরির চেষ্টা করলে অপর ভাই মোজাফফর আলী ও তার লোকজন মালেকা বেগমের ওপর হামলা করে। 

এ সময় মেয়েকে বাচাঁতে বৃদ্ধা মা জমিনা বেগম এগিয়ে এলে মোজাফফর আলী লাঠি দিয়ে তার বৃদ্ধা মা জমিনা বেগমকেও মারধর করেন। এ সময় বৃদ্ধা জমিনা বেগম, মালেকা বেগমসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। 

স্থানীয় গ্রাম পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে পাটগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করান। এ ঘটনায় ওই বৃদ্ধার ছেলে নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে ভাই, ভাইয়ের স্ত্রী, ভাইয়ের শ্বশুর ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। 

নজরুল ইসলাম বলেন, ছোট ভাই মোজাফফর বোনের জমি দখল করার চেষ্টা করে। এতে বাধা দিতে গেলে সে মাকে মারধর করে। এর আগেও মোজাফফর বৃদ্ধা মাকে মারধর করেছে। 

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মোজাফফর আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।  

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত বলেন, ভাই বোনের মধ্যে জমির ভাগাভাগি নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এ নিয়ে আগেও একটি মামলা হয়েছে। আজ আবারো তাদের মধ্যে মারামারি হয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে