প্যাথলজি রিপোর্টে মৃত ডাক্তারের স্বাক্ষর

ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ১০ ১৪২৮,   ১০ রমজান ১৪৪২

প্যাথলজি রিপোর্টে মৃত ডাক্তারের স্বাক্ষর

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৩৬ ২৩ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৮:৩০ ২৩ জুলাই ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বরিশালের একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা ও দুই মালিককে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মৃত চিকিৎসকের স্বাক্ষর ব্যবহার করে প্যাথলজি রিপোর্ট তৈরি করায় ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা করা হয়েছে। 

নগরীর জর্ডান রোড এলাকার ‘দি সেন্ট্রাল মেডিকেল সার্ভিসেস’ নামে ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বুধবার রাতে এ অভিযান চালানো হয় বলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক বরিশাল জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান জানান।

দণ্ডিতরা হলেন- সেন্ট্রাল মেডিকেল সার্ভিসেসের মালিক জসিম উদ্দিন মিলন, এ কে চৌধুরী ও চিকিৎসক নূর এ সরোয়ার সৈকত।

ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান জানান, গোপন খবরের ভিত্তিতে সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ও র‌্যাব সদস্যদের নিয়ে বুধবার রাতে ওই ডায়াগস্টিক সেন্টারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় দেখা যায় গাজী আমানুল্লাহ খান নামে এক চিকিৎসকের স্বাক্ষরে প্যাথলজি রিপোর্ট তৈরি করা হচ্ছে। অথচ ওই চিকিৎসক দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ১৯ জুলাই ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা যান।

এছাড়া কয়েকদিন আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া চিকিৎসক এমদাদুল্লাহ খানের নামও ডায়াগস্টিক সেন্টারের সাইনবোর্ডে ব্যবহার করা হয়েছে।

ছবি: সংগৃহীততিনি আরো জানান, এ ঘটনায় ডায়াগস্টিক সেন্টারের দুই মালিককে ৬ মাস করে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চিকিৎসক নূর এ সরোয়ার সৈকত নিজেকে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন। এ অপরাধে তাকেও ৬ মাসের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে ডায়াগস্টিক সেন্টারটি সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম