মায়ের গলায় ছুরি ধরে মেয়েকে অপহরণ, ১৫ ঘণ্টা পর উদ্ধার

ঢাকা, সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২২ ১৪২৭,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

মায়ের গলায় ছুরি ধরে মেয়েকে অপহরণ, ১৫ ঘণ্টা পর উদ্ধার

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩৩ ৩ জুন ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাগেরহাটের শরণখোলায় মায়ের গলায় ছুরি ধরে করে তার অনার্স পড়ুয়া মেয়েকে দলবল নিয়ে ফিল্মি স্টাইলে তুলে নিয়ে গেছে সুজন গাজী নামে এক মাদক ব্যবসায়ী।

অপহরণের ১৫ ঘণ্টা পর শরণখোলা থানা পুলিশ সকালে ওই মেয়েকে উদ্ধার করে  তাদের হেফাজতে নিয়েছে।

এ ঘটনায় মেয়ের বাবা মো. জাহাঙ্গীর হাওলাদার বাদী হয়ে শরণখোলা থানায় একটি মামলা করেছেন।

এদিকে অপহরণকারী ও তার দলবলের অব্যাহত হুমকিতে ওই মেয়ের পরিবার  নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।

উপজেলার মঠেরপাড় গ্রামের জাহাঙ্গীর হাওলাদার জানান, একই গ্রামের মো. ফারুক গাজীর ছেলে সুজন গাজী প্রায়ই তার মেয়েকে উত্যক্ত করতো। গত সোমবার সন্ধ্যায় ৬টার দিকে তিনি বাড়িতে না থাকার সুযোগে সুজন তার ৬-৭ জন মাদকাসক্ত বন্ধুকে নিয়ে তার বাড়িতে আসেন। পরে তার স্ত্রী ময়না বেগমের গলায় ছুরি ধরে জিম্মি করেন তারা। এ সময় বখাটেরা তার বসত ঘরের আসবাপত্র তছনছ করে এবং তার  মেয়েকে ফিল্মি স্টাইলে তুলে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও সুজনের মামা মো. জাহাঙ্গীর তালুকদার বলেন, সুজন বখাটে হয়ে যাওয়ার পর থেকে আমরা তার পরিচয় দেইনা।

সুজনের বাবা মো. ফারুক গাজী বলেন, ছেলের যন্ত্রণায় আমি অতিষ্ঠ। 

শরণখোলা থানার ওসি এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, খবর পেয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১৫ ঘণ্টা পর বানিয়াখালী এলাকা থেকে অপহৃত  মেয়েকে করেছে। ওই মেয়ে এখন তাদের হেফাজতে। বুধবার দুপুরে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখসহ সুজনের অজ্ঞাত পাঁচ বন্ধুর নামে  একটি মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ