করোনায় সুস্থতার হার বাড়ছে

ঢাকা, বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৭ ১৪২৭,   ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

করোনায় সুস্থতার হার বাড়ছে

নিউজ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৪৮ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনায় সুস্থতার হার বাড়ছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় দফা ঢেউ আরো ভয়াবহ হবে কিনা, এমন প্রশ্ন যখন বিশ্বজুড়ে ঘুরছে, তখন করোনা থেকে সুস্থতার হার বাড়ছে খবরটিও গুরুত্বপূর্ণ। 

ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে অনেক মানুষ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার জানিয়েছে, বুধবার পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে দুই কোটি ৩৩ লাখ ৮৬ হাজার ৭১৪ জন সুস্থ হয়েছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটার আরো জানিয়েছে, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে সারাবিশ্বে আজ বুধবার পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ১৭ লাখের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৭৪ লাখ ৯ হাজার ৪১২ চিকিৎসাধীন এবং ৬২ হাজার ৯৯ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটার জানিয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বাড়ছে। বুধবার পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ৭৫ হাজারের বেশি। সুস্থতার যে সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান এসেছে তাতে ভারতে সর্বাধিক ৪৫ লাখ ৮১ হাজার ৮২০ জন, যুক্তরাষ্ট্রে ৪৩ লাখ ৪৬ হাজার ১১০, ব্রাজিলে ৩৯ লাখ ৪৫ হাজার ৬২৭, রাশিয়ায় ৯ লাখ ১৭ হাজার ৯৪৯, কলম্বিয়ায় ছয় লাখ ৫০ হাজার ৮০১, পেরুতে ছয় লাখ ২২ হাজার ৪১৮, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঁচ লাখ ৯২ হাজার ৯০৪ জন সুস্থ হয়েছে।

সুস্থতার হার সব দেশেই বাড়ছে। পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, ভারত ছাড়াও দক্ষিণ এশিয়ার সর্বাধিক করোনায় আক্রান্ত দুটি দেশ পাকিস্তান ও বাংলাদেশেও সুস্থতার হার ঊর্ধ্বমুখী। গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত পাকিস্তানে দুই লাখ ৯৩ হাজার ১৫৯, বাংলাদেশে দুই লাখ ৬০ হাজার ৭৯০ জন সুস্থ হয়েছে।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ সংস্থা জানিয়েছে, করোনা থেকে সুস্থতার হার বাড়লেও এই জীবাণুকে হাল্কা করে নেয়ার সুযোগ নেই। যেকোনো পরিস্থিতিতে আরো ভয়ানক হতে পারে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ, অঞ্চল এবং দুটি আন্তর্জাতিক প্রমোদতরীতে ছড়িয়েছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে