করোনা থেকে সুস্থ হলেন দুই কোটি ২৮ লাখের বেশি মানুষ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১৪ ১৪২৭,   ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

করোনা থেকে সুস্থ হলেন দুই কোটি ২৮ লাখের বেশি মানুষ

নিউজ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৯:৫৩ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০  

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

গ্রাফিক্স: ডেইলি বাংলাদেশ

করোনায় সারাবিশ্বে আজ পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ১২ লাখের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৭৪ লাখ ৪২ হাজার ১৪৩ চিকিৎসাধীন এবং ৬১ হাজার ২৪৬ জন (১ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে দুই কোটি ২৮ লাখ ২১ হাজার ৩১১ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগ থেকে ভারতে সেরে উঠেছে ৪৩ লাখ ৯২ হাজার ৬৫০, যুক্তরাষ্ট্রে ৪২ লাখ ৫০ হাজার ১৪০ জন, ব্রাজিলে ৩৮ লাখ ৫১ হাজার ২২৭, রাশিয়ায় ৯ লাখ ৯ হাজার ৩৫৭, কলোম্বিয়ায় ছয় লাখ ৩৩ হাজার ১৯৯, পেরুতে ছয় লাখ সাত হাজার ৮৩৭, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাঁচ লাখ ৯০ হাজার ৭১ জন, মেক্সিকোতে চার লাখ ৯৯ হাজার ৩০২, চিলিতে চার লাখ ১৯ হাজার ৭৪৬, ইরানে তিন লাখ ৫৯ হাজার ৫৭০, সৌদি আরবে তিন লাখ ১০ হাজার ৪৩৯, পাকিস্তানে দুই লাখ ৯২ হাজার ৩০৩, তুরস্কে দুই লাখ ৬৭ হাজার ২৩৩, বাংলাদেশে দুই লাখ ৫৬ হাজার ৫৬৫, জার্মানিতে দুই লাখ ৪৪ হাজার, ইতালিতে দুই লাখ ১৮ হাজার ৩৫১, স্পেনে এক লাখ ৯৭ হাজার ৪৩১ জন, কানাডায় এক লাখ ২৪ হাজার ৬৯১, কাতারে এক লাখ ২০ হাজার ৩০৩, ফ্রান্সে ৯১ হাজার ৫৭৪ জন, ওমানে ৮৫ হাজার ৪১৮ এবং কুয়েতে ৮৯ হাজার ১৬৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

এ ছাড়া চীনের মূল ভূখণ্ডে ৮০ হাজার ৪৮৪ জন, কুয়েতে ৯০ হাজার ১৬৮ জন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৭৪ হাজার ২৭৩, সিঙ্গাপুরে ৫৭ হাজার ১৮১, সুইজারল্যান্ডে ৪০ হাজার ৫০০, দক্ষিণ কোরিয়ায় ২০ হাজার ২৪৮, অস্ট্রেলিয়ায় ২৪ হাজার ৬৩ ও মালয়েশিয়ায় ৯ হাজার ৩৫৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ, অঞ্চল এবং দুটি আন্তর্জাতিক প্রমোদতরীতে ছড়িয়েছে। করোনাভাইরাসে সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত ৯ লাখ ৬৫ হাজার ৩৬ জন রোগী মারা গেছে।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে