রাত কাটানোর পর হত্যা করতেন রানী, কারও পছন্দ বান্ধবীর প্রেমিক

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জানুয়ারি ২০২২,   ৭ মাঘ ১৪২৮,   ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রানীদের কর্মকাণ্ড : পর্ব ১

রাত কাটানোর পর হত্যা করতেন রানী, কারও পছন্দ বান্ধবীর প্রেমিক

সাত রঙ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫৫ ২ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৭:৫৫ ২ ডিসেম্বর ২০২১

ক্যাথরিন দ্য গ্রেট সিরিজের একটি দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

ক্যাথরিন দ্য গ্রেট সিরিজের একটি দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

কোনো রানীর কথা উঠলেই কল্পনায় ভেসে ওঠে একজন সম্ভ্রান্ত নারী। যার মাথায় রয়েছে বিশাল মুকুট এবং পরনে রয়েছে রাজকীয় পোশাক। তবে তাকে কি ভিন্ন রূপে কল্পনা করতে পারেন? কিংবা বলতে পারে কি তার দ্বারাই হতে পারে রাজ্যের সব নৃশংস কিংবা অদ্ভুত কর্মকাণ্ড? এমনকি একজন রানী করতে পারে চুরির মতো অনৈতিক কর্মকাণ্ড?

ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম কয়েক রানী সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

রানী এনজিঙ্গা, অ্যাঙ্গোলার রানী

রানী এনজিঙ্গা, অ্যাঙ্গোলার রানী
এনজিঙ্গা যেই দেশটির রানী ছিলেন, সেটি বর্তমানে অ্যাঙ্গোলা নামে পরিচিত। রানী এনজিঙ্গা তার ভাইয়ের কাছ থেকে শাসন ছিনিয়ে নেয়ার পর পর্তুগিজদের সঙ্গে যুদ্ধ শুরু করে। সেই যুদ্ধ নিয়ে খুব ব্যস্ত থাকলেও তার প্রেমের জীবন ছিল খুবই রক্তাক্ত।

তিনি তার দেশের সব সুদর্শন পুরুষদের নিয়ে প্রাসাদে একটি হেরেম তৈরি করেছিল এবং প্রতি রাতে হেরেম থেকে দুজন পুরুষকে তিনি বাছাই করে নিতেন। এই দুজন পুরুষকে তার সামনে লড়াই করতে দেয়া হতো। যেই পুরুষ লড়াইয়ে বিজয়ী হতো তার সঙ্গে রানী রাত্রিযাপন করতেন এবং যিনি হেরে যেতেন তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হতো। যে পুরুষ লড়াই করে বিজয়ী হতো তার ভাগ্যও খুব ভালো নয়। কারণ রানীর সঙ্গে রাত্রিযাপন করার পরই বিজয়ী পুরুষকে মেরে ফেলা হতো। 

ক্যাথরিন দ্য গ্রেট, রাশিয়ার সম্রাজ্ঞী

ক্যাথরিন দ্য গ্রেট, রাশিয়ার সম্রাজ্ঞী
ক্যাথরিন দ্য গ্রেট ছিলেন রাশিয়ার সম্রাজ্ঞী। তার শাসনকাল ছিল ১৭৬২ থেকে ১৭৯৬ সাল পর্যন্ত। তিনি খুবই দায়িত্ববান ও ভালো নেত্রী ছিলেন। কিন্তু তার এই ভালো দিকের পেছনে অনেক কিছু লুকিয়ে ছিল। তার বিরুদ্ধে এমনও অভিযোগ আছে যে তিনি একটি ঘোড়ার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছিলেন।

ক্যাথরিন দ্য গ্রেট সবসময় বিভিন্ন ধরনের পুরুষদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতেন এবং তাদের সন্তান প্রসব করতে পছন্দ করতেন। কিন্তু তিনি যেনতেন কোনো পুরুষের সঙ্গে রাত্রিযাপন করতেন না। তিনি ভালো পুরুষ খোঁজার জন্য তার বান্ধবীকে ব্যবহার করতেন। আগের দিন তার বান্ধবী একজন পুরুষের সঙ্গে রাত্রিযাপন করতেন এবং পরের দিন সকালে তার কাছে সে পুরুষ সম্পর্কে বিবরণ দিতেন। বিবরণ শুনে যদি তার ভালো লাগতো তাহলে সে সেই পুরুষের সঙ্গে রাত্রিযাপন করতেন এবং তার সন্তান ধারণ করতেন।

অনেকবারই তিনি তার বান্ধবীকে প্রেমিকদের সঙ্গে দুইয়ের অধিকবার রাত্রীযাপন দেখেছেন। তবে তাদের মধ্যে কখনো এই বিষয় নিয়ে কোনো ঝগড়া লাগেনি। এমন বন্ধু পাওয়া খুবই দুষ্কর বলা চলে।

(চলবে...)

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএ/এনকে

English HighlightsREAD MORE »