রাজধানীর খাল ও জলাধারের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা হবে: মেয়র আতিক

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২,   ৫ মাঘ ১৪২৮,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রাজধানীর খাল ও জলাধারের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা হবে: মেয়র আতিক

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৫৪ ২৭ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৮:০৩ ২৭ নভেম্বর ২০২১

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে নদী, খাল ও জলাধারের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা হবে।

শনিবার সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় বছিলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় খেলার মাঠে “বুড়িগঙ্গা নদী মোর্চা” এবং “ওয়াটার কীপারস বাংলাদেশ কনসোর্টিয়াম” কর্তৃক আয়োজিত বুড়িগঙ্গা নদী উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, সিটি কর্পোরেশন থেকে অবৈধ দখলদারদের কোনো বৈধ নোটিশ দেওয়া হবে না, বিনা নোটিশেই তাদের উচ্ছেদ করা হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসির উদ্যোগে জনগণের সহায়তায় খাল উদ্ধার ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে, প্রতিটি খালের দুই পাড়ের সীমানা নির্ধারণ করে ওয়াকওয়ে নির্মাণসহ যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, অপরিকল্পিত ঢাকার অধিকাংশ ভবনেই কার্যকর সেপটিক ট্যাংক ও সোক ওয়েল না থাকায় অপরিশোধিত পয়ঃবর্জ্য সরাসরি ড্রেন কিংবা খালে পতিত হওয়ায় জলাশয়ের পানিসহ সার্বিক পরিবেশ দূষিত হচ্ছে।

মেয়র আরো বলেন, সুস্থ পরিবেশের স্বার্থেই নগরীর বাসাবাড়িগুলোতে আধুনিক সেপটিক ট্যাংক ও সোক ওয়েল স্থাপন করতে হবে এবং পরিশোধন ব্যবস্থাও সচল রাখতে হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, কংক্রিটের ঢাকা থেকে বাঁচতে হলে বিশুদ্ধ অক্সিজেনের জন্য গাছের কোনো বিকল্প নেই। তাই ডিএনসিসির পক্ষ থেকে শূন্য থেকে দুই বছর বয়সী সব শিশুকে জন্মসনদের সঙ্গে জিও ব্যাগে করে একটি করে গাছের চারা উপহার দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় যেসব ভবনে ছাদ বাগান করা হবে সেসব ভবন মালিকদের জন্য ১০ শতাংশ হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করা হবে। নিজের এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্যই সবুজায়নের মাধ্যমে ঢাকাকে একটি অক্সিজেন হাব হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম আরো বলেন, অপরিকল্পিত ঢাকাকে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একটি সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকায় রূপান্তরিত করতে হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই ডিএনসিসি মেয়র প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত অন্যান্য অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে পায়রা উড়িয়ে বুড়িগঙ্গা নদী উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক ও ওয়াটার কিপারস বাংলাদেশের সমন্বয়ক শরীফ জামিলের সঞ্চালনায় এবং বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মী ও বুড়িগঙ্গা নদী উৎসবের সভাপতি সুলতানা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম এ খান এবং স্থানীয় কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে/এনকে

English HighlightsREAD MORE »